Home বাংলাদেশ

প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন আশা করি: সিইসি

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে. এম. নুরুল হুদা।

সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে তিনি এমন আশাবাদ প্রকাশ করেন।

সিইসি বলেন, ‘প্রতিযোগিতা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন হবে বলে আমরা আশা করি।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে সিইসি বলেন, ‘মতবিরোধ থাকলেও সব রাজনৈতিক দলকে নির্বাচনে অংশগ্রহণনের অনুরোধ জানাই।’

নির্বাচনী প্রচারণায় সব রাজনৈতিক দল সমান সুযোগ পাবে বলেও এ সময় উল্লেখ করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

তিনি আরও বলেন, প্রযুক্তির ওপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র অনলাইনে দাখিল করা যাবে।

এই ভাষণেই প্রধান নির্বাচন কমিশনার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ১৯ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ২২ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর। আর নির্বাচন হবে ২৩ ডিসেম্বর।

নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার তারিখ পেছাতে বিরোধীদলীয় জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দাবির মধ্যেই বৃহস্পতিবার এই তফসিল ঘোষণা করলেন সিইসি।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে এক যোগে বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতারে সিইসির এই ভাষণ সম্প্রচার করা হয়। এছাড়া বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতেও ভাষণ সম্প্রচার করা হয়।