Home আরো খবর

পরকীয়ার অভিযোগে কাতার প্রবাসীর স্ত্রীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

কুমিল্লার লালমাই উপজেলায় কাতার প্রবাসী আব্দুল মালেকের স্ত্রী শিরিন আক্তারকে পরকীয়ার অভিযোগ এনে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করেছেন গ্রাম্য মাতব্বররা। বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাতে এ ঘটনায় সেলিম নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে সদর দক্ষিণ থানা পুলিশ। সেলিম উপজেলার বাগমারা উত্তর ইউনিয়নের মনোহরপুর গ্রামের উমর আলীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মনোহরপুর গ্রামের মান্নান মাস্টারের ছেলে জাকারিয়ার স্ত্রীর সঙ্গে প্রবাসীর স্ত্রী শিরিন আক্তারের কোন এক বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। পরে কথা কাটাকাটির বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য পাশের বাড়ির মন্নান মাস্টারের ছেলে কিবরিয়ার সঙ্গে শিরিন আক্তারের পরকীয়া প্রেম সম্পর্ক রয়েছে বলে অভিযোগ আনা হয়। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে গত ৩ সেপ্টেম্বর শিরিন আক্তারের বাড়িতে গ্রাম্য সালিশি অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে গ্রাম্য মাতব্বর দুলা মিয়ার ছেলে সোলেমান মেহেদীর নির্দেশে শিরিন আক্তারকে মধ্যযুগীয় কায়দায় বেত্রাঘাত করা হয়। বুধবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বেত্রাঘাতের ভিডিওটি ভাইরাল হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কেএম ইয়াসির আরাফাত জানান, দোষীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জকে অবহিত করা হয়েছে। সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন অর রশিদ জানান, এ ঘটনায় সোলেমান মেহেদীকে প্রধান আসামি করে আটজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। একজন আটক করা হয়েছে।