Home আন্তর্জাতিক

রাশিয়ার বিশাল সামরিক মহড়ায় চীনের যোগদানের নেপথ্য

রাশিয়ায় শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী বিশাল এক সামরিক মহড়া যা সোভিয়েত আমলের পর সবচেয়ে বড় সামরিক প্রদর্শনী। এতে এই প্রথমবারের মতো চীনা সৈন্যরাও অংশ নিচ্ছে। যাকে দেখা হচ্ছে দুটো দেশের মধ্যে গভীর বন্ধুত্বের চিহ্ন হিসেবে।

সেনাবাহিনী, বিমান ও নৌবাহিনীর তিন লাখেরও বেশি রুশ সৈন্য এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে। পশ্চিমা বিশ্বের সাথে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার মধ্যেই এই মহড়া চলছে পূর্ব সাইবেরিয়াতে।

রাশিয়া বলছে, দেশটির ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়া যার নামকরণ করা হয়েছে ভস্তক-১৮। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের আমলে বড় ধরনের যেসব সামরিক মহড়া হয়েছে, এবারের তুলনায় সেগুলো কিছুই নয়।

পাঁচ দিনের এই সামরিক মহড়ায় অংশ নিচ্ছে তিন লাখেরও বেশি সৈন্য, ৩৬ হাজার সামরিক যান, এক হাজারেরও বেশি যুদ্ধবিমান এবং আশিটির মতো রণতরী। এছাড়াও রাশিয়া এই প্রথমবারের মতো এধরনের মহড়ায় অংশ নেওয়ার জন্যে সাবেক সোভিয়েত মিত্রদের বাইরের কোন একটি দেশ চীনকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে।

রাশিয়ার উপর দীর্ঘদিনের নিষেধাজ্ঞা এবং পশ্চিমা বিশ্বের সাথে যখন রাশিয়ার উত্তেজনা বাড়ছে ঠিক তখনই চীনা সৈন্যদের অংশগ্রহণে এই মহড়া অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

পশ্চিমা সামরিক জোট নেটোর একজন মুখপাত্র বলছেন, এই মহড়া প্রমাণ করছে বড় ধরনের সংঘাতের দিকে মনযোগ দিচ্ছে। কিন্তু প্রেসিডেন্ট পুতিনের একজন মুখপাত্র বলেছেন, মস্কোর প্রতি আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গিও আগ্রাসনমূলক এবং বন্ধুত্বপূর্ণ নয়। আর সেকারণে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা শক্তিও দেশটির জন্যে অত্যন্ত জরুরী।