Bangladesh News24

সব

রাত বারোটার পর আরও ৫০০ মেগাওয়াট ভারতীয় বিদ্যুৎ

রবিবার দিবাগত রাত বারোটার পর ভারত থেকে আরও ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসছে। তবে, সোমবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টা ৪৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বিদ্যুৎ আমদানির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। ভেড়ামারায় স্থাপিত উচ্চক্ষমতার সঞ্চালন লাইনের দ্বিতীয় ইউনিটের মাধ্যমে এই বিদ্যুৎ আমদানি করা হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদ।

এর আগে ২০১৩ সালের ৫ অক্টোবর ভারত থেকে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি শুরু হয়। বর্তমানে ওই ৫০০ মেগাওয়াট ছাড়াও ত্রিপুরা থেকে ১৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি হচ্ছে। বর্তমানে ভারত থেকে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করা হচ্ছে। এর সঙ্গে সোমবার আরও নতুন ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যুক্ত হওয়ার পর বিদ্যুৎ আমদানির মোট পরিমাণ দাঁড়াবে ১ হাজার ৬৬০ মেগাওয়াট।

এ প্রসঙ্গে পিডিবির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদ বলেন, ‘আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন সোমবার বিকেলে হলেও আজ রবিবার দিবাগত রাত ১২টায় পরীক্ষামূলকভাবে এই বিদ্যুৎ আসা শুরু হবে। অর্থাৎ ১০ সেপ্টেম্বরের প্রথম প্রহরে বিদ্যুৎ আমদানি শুরু হতে যাচ্ছে। ভারতকে এজন্য ৩০০ মেগাওয়াটের একটি চাহিদা দেওয়া হয়েছে।’

সোমবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর ভেড়ামারা কেন্দ্রে এক সুধীসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য দেবেন। সুধীসমাবেশে মন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

এদিকে, বিদ্যুৎ সঞ্চালনের দায়িত্বে থাকা পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশের (পিজিসিবি) প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী কিউ এম শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা সবাই ভেড়ামারায় রয়েছি। আপাতত ভারতকে ৩০০ মেগাওয়াটের একটি চাহিদা দেওয়া হয়েছে। রাত ১২টা থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার কথা। তবে কোনও কারণে সম্ভব না হলে সকাল ১০টা থেকেই বিদ্যুৎ আসবে।’
বিদ্যুৎ বিভাগ জানায়, এই বিদ্যুৎ আমদানির জন্য এরইমধ্যে ভারতের কোম্পানি এনটিপিসি বিদ্যুৎ ভ্যাপার নিগাম লিমিটেড (এনভিভিএন) ও পাওয়ার ট্রেডিং করপোরেশন (পিটিসি) ইন্ডিয়া লিমিটেডকে নির্বাচিত করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ। গত ১১ এপ্রিল সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি তাদের দর প্রস্তাব অনুমোদনও করেছে।

পিডিবি সূত্র জানায়, বর্তমানে স্বল্পমেয়াদে ৩০০ ও ২০০ মেগাওয়াট করে ভারতের এই দুই কোম্পানির কাছ থেকে বিদ্যুৎ কেনা হচ্ছে। সরকার স্বল্প ও দীর্ঘ—দুই মেয়াদে ভারত থেকে বিদ্যুৎ কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ২০১৮ সাল থেকে ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্বল্পমেয়াদ এবং ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০৩৩ সালের ৩১ মে পর্যন্ত মেয়াদকে দীর্ঘমেয়াদ হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে।

সূত্র আরও জানায়, এনভিভিএন (ইন্ডিয়া) থেকে স্বল্পমেয়াদে প্রতি ইউনিট ৪ টাকা ৭১ পয়সা দামে প্রতিদিন ৩০০ মেগাওয়াট ও পিটিসি ইন্ডিয়া থেকে প্রতি ইউনিট ৪ টাকা ৮৬ পয়সা দামে প্রতিদিন ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করা হবে। তবে, দীর্ঘমেয়াদে এনভিভিএন প্রতি ইউনিট ৬ টাকা ৪৮ পয়সা মূল্যে ৩০০ মেগাওয়াট ও পিটিসি থেকে প্রতি ইউনিট ৬ টাকা ৫৪ পয়সা মূল্যে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করা হবে।

পাঠকের মতামত...
image-id-784912

চট্টগ্রাম বন্দরে একদিনে কনটেইনার ওঠানামায় রেকর্ড

দেশের প্রধান বন্দর চট্টগ্রাম বন্দরে একদিনে কনটেইনার ওঠানামার নতুন রেকর্ড...
image-id-784527

৩০০০ কোটি টাকার বাজার মূলধন হারালো ডিএসই

গেল সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসের (১৬ থেকে ২০ সেপ্টেম্বর) মধ্যে তিন...
image-id-784389

বেড়েছে মুরগির দাম, ঝাঁজ কমেছে পেঁয়াজের

রাজধানীতে প্রায় একমাস স্থিতিশীল থাকার পর বাড়তে শুরু করেছে মুরগির...
image-id-784240

২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

ব্যবসায়ী সমাজের সার্বিক সহযোগিতায় সারা পৃথিবীতে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোড মডেলে...
© Copyright Bangladesh News24 2008 - 2018
Email: info@bdnews24us.com / domainhosting24@gmail.com