খালেদা জিয়া আবারও জ্বরে আ’ক্রান্ত

প্রকাশিত: জুন ১৩, ২০২১ / ১০:৫৮অপরাহ্ণ
খালেদা জিয়া আবারও জ্বরে আ’ক্রান্ত

আবারও জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রবিবার ভোরে তার শরীরে তাপমাত্রা হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় বিকেলে মেডিক্যাল বোর্ড পর্যালোচনা বৈঠক করে প্যাথলজি টেস্ট দিয়েছে।

এর রেজাল্ট আসবে আজ সোমবার। রেজাল্টের পরই বুঝা যাবে বিএনপি চেয়ারপারসনের এই নতুন উপসর্গ কেন দেখা দিল। রবিবার মেডিক্যাল বোর্ডের একজন চিকিৎসক এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

ওই চিকিৎসক জানান, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের প্যারামিটারসগুলো ওঠা-নামা করছে। চিকিৎসকরা সেই অনুযায়ী চিকিৎসা দিচ্ছেন। জ্বর আসার পর একাধিক প্যাথলজি টেস্ট করানো হয়েছে। এর রেজাল্ট আসলে বোঝা যাবে এটা স্বাভাবিক জ্বর, নাকি অন্য কিছু। জ্বর স্বাভাবিক মাত্রার চেয়ে অনেক বেশি ছিল, মেডিক্যাল বোর্ড এর কারণ খুঁজছে।

ওই চিকিৎসক বলেন, খালেদা জিয়ার হৃদ স্পন্দনের হার স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি। আর ডায়বেটিসের মাত্রা ১১-১৩ এর মধ্যে আছে। হিমোগ্লোবিন বাড়ছে না।

মেডিক্যাল বোর্ডের আরেকজন সদস্য জানান, পোস্ট কভিডের চিকিৎসা করতে গিয়ে অন্য রোগের চিকিৎসাগুলো এখনো সমানভাবে মনোযোগ দেওয়া সম্ভব হয়নি। এখন সেগুলো সামনে আসছে। এ জন্যই আমরা বলছি, হাইয়ার সেন্টারে ট্রিটমেন্ট নেওয়া দরকার।

যেখানে মাল্টিপল ডিজিসের ট্রিটমেন্ট পসিবল। এখন মূলত সমস্যা কিডনি ও রক্তের হিমোগ্লোবিনে। কিডনির সমস্যায় খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন ধরে ভুগছেন। কিডনির ক্রিয়েটিনিন কয়েকদিন ধরেই বডার লাইন ক্রস করছে।

এর মাত্রা প্রায় ২মিলিগ্রাম। এটা কেন কমছে না, এজন্যই মেডিক্যাল বোর্ড উদ্বিগ্ন। হার্টেও সমস্যা আছে। গত ২৭ মে একবার জ্বর এসেছিল খালেদা জিয়ার।

গত ২৭ এপ্রিল খালেদা জিয়া এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। ৬ দিন পর ৩ মে তিনি শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে তাকে জরুরিভাবে করোনারি কেয়ার ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। এভারকেয়ার হাসপাতালের হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসা চলছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন