দুই মেয়েকে যৌ’ন হেনস্থা ও ধ’র্ষ’ণ, অতঃপর মায়ের মৃ’ত্যু!

প্রকাশিত: জুন ৯, ২০২১ / ০৮:১৯অপরাহ্ণ
দুই মেয়েকে যৌ’ন হেনস্থা ও ধ’র্ষ’ণ, অতঃপর মায়ের মৃ’ত্যু!

ভারতের মালদার হবিবপুরের মঙ্গলপুরা গ্রামে ঘটেছে এক নি’র্ম’ম ঘটনা। বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার পথে ২ তরুণীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধ’র্ষ’ণ এবং যৌ’ন হে’ন’স্তার অভিযোগ ওঠল। ঘটনাচক্রে এই ঘটনার পরেই হৃদরোগে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন দুই নি’র্যা’তিতার মা। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে এই তথ্য জানা গেছে।

আনন্দবাজার বলছে, মঙ্গলবার ওই ২ তরুণী একটি বিয়েবাড়িতে গিয়েছিলেন। বাড়ি ফেরার পথে বাইকে করে তাঁদের তুলে নিয়ে যায় ৪ যুবকের একটি দল। এর পর রাস্তার পাশে একটি পুকুরের ধারে বড়বোনকে গণ’ধ’ র্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ।

ছোটবোনকে যৌ’ন হে’ন’স্তা করা হয়েছে বলেও অ’ভি’যোগ। মেয়েরা বাড়িতে না ফেরায় সন্ধানে নামে তাঁদের পরিবার। তাঁরা দুই বোনকে উদ্ধারের পাশাপাশি এক অভিযুক্তকে আ’ট’ক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

বুধবার দুই বোনকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল হাসপাতালে। সেই সময় আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন তাঁদের মা। তড়িঘড়ি তাঁকে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিত্‍সকরা জানান, তিনি হৃদরোগে আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন।

তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে মালদহ মেডিক্যালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে তাঁকে মৃ’ত বলে জানান চিকিত্‍সকরা। এমন কাণ্ডে ভেঙে পড়েছে গোটা পরিবারটি। এক নি’র্যা’তিতা বলেন, ‘তাদের দেখলেই চিনতে পারব। পথ আ’ট’কে, আমাদের জোর করে তুলে নিয়ে গিয়েছিল। আমরা অ’ভি’যুক্তদের চরম শাস্তি চাই।’

মালদহের পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, ‘এটা গণ’ধ’ র্ষণের ঘটনা। বড়বোনকে ২টি ছেলে ধ’ র্ষ’ণ করেছে। ছোট মেয়েটিকে কু’প্র’স্তাব দেওয়া হয়েছে। এক জনকে গ্রে’প্তা’র করা হয়েছে। এর পাশাপাশি, নি’র্যা’তিতার মেডিক্যাল পরীক্ষাও করানো হয়েছে।

ওই কাণ্ডে মোট ৫ জন যুক্ত ছিল বলে জানতে পেরেছি। গ্রে’প্তা’র ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে আমরা বাকিদের চিহ্নিত করতে পেরেছি। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সেখান থেকে কিছু প্রমাণও পাওয়া গেছে। অভিযুক্তরা কাছাকাছি থাকে বলেই জানতে পেরেছি।’

সূত্র: আনন্দবাজার।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন