কুয়েতে সাবেক এমপি পাপুলের কা’রা’দ’ণ্ড বেড়ে ৭ বছর

প্রকাশিত: এপ্রি ২৬, ২০২১ / ১১:৫৫অপরাহ্ণ
কুয়েতে সাবেক এমপি পাপুলের কা’রা’দ’ণ্ড বেড়ে ৭ বছর

কুয়েতে দ’ণ্ডি’ত বাংলাদেশের সাবেক সাংসদ কাজী শহিদ ইসলাম ওরফে পাপুলের কা’রা’দ’ণ্ড চার বছর থেকে বেড়ে ৭ বছর হয়েছে। পাশাপাশি তাকে ২০ লাখ কুয়েতি দিনারের অ’র্থ’দ’ণ্ডও দেওয়া হয়েছে।

সোমবার কুয়েতের একটি আপিল আদালত তার কা’রা’দ’ণ্ডা’দেশ তিন বছর বাড়িয়েছেন।

কুয়েতের পাবলিক প্রসিকিউটরের দপ্তর সূত্র এবং দেশটির আরবি দৈনিক আল কাবাস এ খবর জানিয়েছে।

কুয়েতে পাপুলের বি’রু’দ্ধে দুটি মা’ম’লা হয়। একটি মা’ম’লা হয় ঘু’ষ লেন’দেন ও মা’ন’ব পাচা’রের অভি’যোগে এবং অন্যটি করা হয় অর্থ পাচা’রের অভি’যোগে। এর মধ্যে ঘু’ষ লেনদেনের দায়ে আগেই তাঁর চার বছরের কারা’দ’ণ্ডা’দেশ হয়। একই মাম’লায় এবার মানব পা’চা’রে’র দায়ে আদালত ৩ বছর কা’রা’দ’ণ্ড ও ২০ লাখ কুয়েতি দিনারের অর্থ’দ’ণ্ড দিলেন। অন্যদিকে তাঁর বি’রু’দ্ধে অর্থ পাচা’রের মা’ম’লাটি এখনো বিচা’রাধীন।

মা’ন’ব ও অর্থ পা’চা’রের দায়ে কুয়েতের আদালতের রায়ে দ’ণ্ডি’ত হওয়ার পর লক্ষীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের সদস্য পদ বা’তি’ল করা হয়।১৯৮৯ সালে একটি প্রতিষ্ঠানের সুপারভাইজার (শ্রমিকদের তত্ত্বাবধায়ক) হিসেবে চাকরি নিয়ে কুয়েত যান শহিদ। তখন তিনি ছিলেন অনেকটা নিঃ’স্ব। ১৯৯০ সালে ইরাকের কুয়েত দখলের কারণে তিনি দেশে ফিরে আসেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শহিদ আবার কুয়েতে যান।

গত বছরের ৬ জুন রাতে কুয়েতের বাসা থেকে আ’ট’ক করা হয় তাকে। আ’ট’কের সাড়ে সাত মাস আর বি’চা’রপ্রক্রিয়া শুরুর সাড়ে তিন মাসের মাথায় কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলকে দ’ণ্ড দেয় কুয়েতের আদালত।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন