মামুনুল হকের সাতদিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ

প্রকাশিত: এপ্রি ১৮, ২০২১ / ১০:৫৩অপরাহ্ণ
মামুনুল হকের সাতদিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে আদালতে তোলার পর সাতদিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ। সোমবার (১৯ এপ্রিল) সকালে তাকে আদালতে পাঠিয়ে এ রিমান্ড চাওয়া হবে বলে ইত্তেফাক অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ।

আব্দুল লতিফ বলেন, মামুনুলকে আগামীকাল আদালতে প্রেরণ করে সাতদিনের রিমান্ড চাওয়া হবে। ২০২০ সালের মোহাম্মদপুর থানার একটি ভা’ঙ’চুর ও নাশ’ক’তার মাম’লায় তদন্ত চলছিল। তদন্তে হেফাজত নেতা মামুনুলের সম্পৃক্ততার বিষয়টি সুস্পষ্ট হওয়ায় আমরা তাকে গ্রে’ফ’তার করেছি। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে তার বি’রু’দ্ধে অভি’যোগ রয়েছে।

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি মাওলানা মামুনুল হককে গ্রে’ফ’তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও বিভাগ। রবিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর ১টার দিকে মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রে’ফ’তার করা হয়।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুবুল আলম জানান, ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরে হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় দায়ের করা মা’ম’লা’য় তাকে গ্রে’ফ’তার করা হয়েছে। এছাড়া তার বি’রু’দ্ধে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানা ও ঢাকার মতিঝিল থানায় একাধিক মা’ম’লা রয়েছে। এসব মা’ম’লা’য় তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এর আগে তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) হারুন-অর-রশিদ তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ২০২০ সালে মোহাম্মাদপুরে একটি ভা’ঙ’চু’রের মা’মলায় মামুনুল হককে গ্রে’ফ’তা’র দেখানো হয়েছে। তার বি’রু’দ্ধে মতিঝিল, পল্টন ও নারায়ণগঞ্জে আরও কয়েকটি মা’ম’লা আছে। সেগুলো পরে সমন্বয় করা হবে। সোমবার (১৯ এপ্রিল) মামুনুলকে আদালতে তোলা হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন