সেতু ভেঙে খাদে পরল বালুবোঝাই ট্রাক

প্রকাশিত: এপ্রি ১০, ২০২১ / ০৭:১১অপরাহ্ণ
সেতু ভেঙে খাদে পরল বালুবোঝাই ট্রাক

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলায় পারাপারের সময় ব্রিজ ভেঙে খাদে পড়ে গেছে বালুবাহী ট্রাক। শুক্রবার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন ঝুঁকিপূর্ণ সেতুতে এ ঘটনা ঘটে।

এতে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে যোগাযোগ আর রোগী পরিবহনে দেখা দিয়েছে চরম দুর্ভোগ। এদিকে দীঘদিন ধরে ঝুকিপূর্ণ সেতুটির মেরামতের কোনো উদ্যোগ না নেয়ায় দুর্ঘটনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকেই দায়ী করছেন স্থানীয়রা।

সেতুটি ভেঙে যাওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সড়কসহ পার্শ্ববর্তী মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর, সাটুরিয়া ও ঢাকাগামী সড়কে সরাসরি যোগাযোগ বন্ধ হয়ে পড়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, নাগরপুর দরগ্রাম ভায়া ছনকাবাজার সড়কের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন ব্রিজটির দুই পাশের রেলিং ভেঙে মাঝখানে দেবে গিয়েছিল। এরপরও ওই সড়কে যানবাহনগুলো ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করত। তবে দীর্ঘদিন যাবৎ ব্রিজটির এমন দশা থাকলেও সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেয়নি এলজিইডি কর্তৃপক্ষ।

এমনকি সেতুর কোনো পাশেই লাগানো হয়নি সতর্কীকরণ সাইনবোর্ড। ব্যবস্থা করা হয়নি বিকল্প কোনো সড়কের। সতর্কীকরণ সাইনবোর্ড থাকলে হয়তো এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতো না বলে জানান এলাকাবাসী।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বারবার উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানানো হলেও তাদের উদাসীনতার কারণে ব্রিজটি ভেঙে পড়েছে।

ব্রিজের ঢালের মুদি দোকানি আব্দুস ছালাম (৬৯) বলেন, নাগরপুর দরগ্রাম ভায়া ছনকাবাজার সড়কের নাগরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসংলগ্ন খালের ওপর সেতুটি নির্মিত হয় বাংলাদেশ স্বাধীনের আগে। এত বছর আগে সেতুটি নির্মিত হলেও আজ অবধি শুধুমাত্র রেলিং রং করা ছাড়া সেতুর আর কোনো সংস্কার করা হয়নি।

নাগরপুর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) মাহবুবুর রহমান বলেন,যেহেতু খালের পানিপ্রবাহ বন্ধ; তাই দ্রুত সেতুটি ভেঙে সেখানে মাটি ভরাট করে চলাচলের ব্যবস্থা করা হবে।

নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আনিছুর রহমান বলেন,রাতে ঝুঁকিপূর্ণ ওই ব্রিজ দিয়ে একটি বালুবাহী ট্রাক পারাপার হওয়ার সময় ভেঙে সেতুর উপর আটকে যায়। এরপর থেকেই ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন