লকডাউনে ঢাকায় যানজট, গাছাড়া ভাব মানুষের

প্রকাশিত: এপ্রি ৬, ২০২১ / ১১:২১অপরাহ্ণ
লকডাউনে ঢাকায় যানজট, গাছাড়া ভাব মানুষের

প্রা’ণ’ঘাতী ক’রো’নার সং’ক্র’মণ ও মৃ’ত্যু অবনতির দিকে যাওয়ায় দেশের মানুষকে বা’চাঁ’তে ৫ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য ‘লকডাউনের’ ঘোষণা দিয়েছে সরকার। জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি ক’ঠো’র’ভাবে মানার আহ্বানসহ বেশ কয়েকটি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।কিন্তু প্রথম দিনই ঢিলেঢালা ভাব দেখা গেছে সর্বত্র। দ্বিতীয় দিনের পরিস্থিতি আরও করুণ।রাজধানীতে যানবাহন চলাচলে মনে হয়নি যে দেশে লকডাউন চলছে।

রাজধানীর প্রায় প্রতিটি সড়ক ছিল ব্যস্ত।মুক্ত ছিল না এক মিনিটও।কোথাও কোথাও যানজট লেগে যায়।আর মানুষের চলাচলেও দেখা গেছে গাছাড়া ভাব, যেন দেশে ক’রো’না বলতে কিছু নেই।কাজের উদ্দেশে বা কর্মস্থলে যাওয়া ছাড়াও অকারণে গল্প-গু’জ’বে লিপ্ত থাকতে দেখা গেছে।অথচ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ মৃ’ত্যু ও সং’ক্র’মণ হয়েছে।৬৬ জন মৃ’ত্যৃ ও ৭ হাজার ২১৩ জনের শরীরে ক’রো’না ধরা পড়েছে।

কোথাও কোথাও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সুরক্ষার অভাব যেমন ছিল, তেমনি সামাজিক দূরত্বও মানা হয়নি।রাজধানীর কাকরাইল, শান্তিনগর, মালিবাগ, রামপুরা, হাজীপাড়াসহ আশেপাশের অনেক সড়ক ও অলিগলিতে এমন পরিস্থিতি দেখা মিলেছে।অনেক দোকানই খোলা পাওয়া গেছে।ক’রো’না পরিস্থিতি যে দিনে দিনে অবনতির দিকে যাচ্ছে- তার লেশমাত্রও দেখা মেলেনি সাধারণ মানুষের চলাফেরায়।অনেকে মাস্ক পরেননি, আবার কেউ পরলেও রেখেছেন থুঁতনিতে।

এদিকে রাইড শেয়ারিংয়ে যাত্রী উঠাতে নি’ষে’ধা’জ্ঞা থাকলেও বিভিন্ন সড়কে, মোড়ে দেখা গেছে রাইডারদের অবস্থান।সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে যাত্রী বহন করায় অনেক জায়গায় রাইডারকে জ’রি’মা’নাও করেছে ট্রাফিক পুলিশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৬৬ জন মৃ’ত্যু ও সর্বোচ্চ ৭ হাজার ২১৩ জন শ’নাক্ত হওয়ার বিষয়ে উদ্বেগ ও শং’কা প্রকাশ করেছেন খোদ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেছেন, প্রতিদিন যদি ৪-৫ হাজার রোগী বাড়ে তাহলে সারা শহরকে হাসপাতাল বানালেও সামাল দেওয়া সম্ভব না।

মন্ত্রী আরও বলেন, ক’রো’নার দ্বিতীয় ঢেউ প্রতি’রোধে ঢাকার সব হাসপাতালে শয্যা বাড়ানোর ব্যবস্থা করছি। আড়াই হাজার শয্যাকে পাঁচ হাজার করা হয়েছে, এরচেয়ে বেশি বাড়ানো সম্ভব না।জনগণ সতর্ক না হলে মনে রাখতে হবে, পাঁচ হাজার শয্যার পর হাসপাতালগুলোতে এক ইঞ্চি জায়গা নেই আর শয্যা স্থাপনের।

বিশেষজ্ঞরাও বলছেন, এভাবে চলতে থাকলে দেশে ক’রো’না পরিস্থিতি আরও ভয়া’বহ রূপ নেবে- যা নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যেতে পারে।

ক’রো’না সংক্রমণ বাড়তে থাকায় হাসপাতালে দেখা দিয়েছে আইসিইউ ও সাধারণ কোভিড রোগীদের চিকিৎসা সংকট- এ পরিস্থিতিতে চারটি শর্ত না মানলে সংক্রমণ কমানো সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ও ইউজিসি (ইউনিভার্সিটি গ্রান্টস কমিশন বা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন) অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ।

শর্তগুলো হচ্ছে- ১. সবাইকে বা’ধ্য’তা’মূলকভাবে মাস্ক ব্যবহার করা ২. সামাজিক দূরত্ব ক’ঠো’রভাবে বজায় রাখা ৩. স্বাস্থ্যবিধি সর্বতোভাবে পালন করা এবং ৪. সবার ক’রো’নার টিকা গ্রহণ করা বা’ধ্য’তা’মূলক।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন