‘ক্রিকেট বোর্ডের অনেকের অনেক ব্যবসা আছে মাশাআল্লাহ’

প্রকাশিত: মার্চ ৩০, ২০২১ / ১১:১৪অপরাহ্ণ
‘ক্রিকেট বোর্ডের অনেকের অনেক ব্যবসা আছে মাশাআল্লাহ’

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন একটি অনলাইন পোর্টালকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, বোর্ডের অনেকের অনেক ব্যবসা আছে মাশাআল্লাহ। কিন্তু আমাকে চাকরি করেই খেতে হয়। এটা নিয়ে অনেকে ট্রল করেছে যে, আমি বিসিবি থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে নিচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, আমি যদি বিসিবির ম্যানেজার হিসেবে আসি তখন কিন্তু কোম্পানি (কর্মস্থল) আমাকে বেতন দেয় না। আমার আয়ের উৎস হলো এই চাকরিটা। আমার সংসার আছে, বাড়ি ভাড়া আছে, খরচ আছে; আমাকে তো কিছু করে চলতে হবে। আমি এই চাকরিটা করে চলি। এখন সেটা বাদ দিয়ে ম্যানেজার হলে আমাকে টাকা নিতে হবে না?

জাতীয় দলের সাবেক এই ম্যানেজার আরও বলেন, আসলে বাংলা ট্রাকের যে চাকরি করি সেটার বেতনটাই আমি বিসিবি থেকে নিতাম। তারপরও আমার লস হতো।

বিসিবি আমাকে যে টাকা দিত সেটার ট্যাক্স বিসিবি দেয় না, সেটা আমাকেই দিতে হতো কিন্তু বাংলা ট্রাকের ট্যাক্স তারাই দিতো। আমি ভেঙেচুরে কাজ করার পক্ষে নই। আমাকে দায়িত্ব দিল, কিছু একটা হলো, মিডিয়ার প্রেশার হলো এবং আমাকে বাদ দিয়ে দিল- এ রকম হলে নিজেকে ছোট ছোট লাগে।

তিনি আরও বলেন, এখন গেম ডেভেলপমেন্ট চেয়ারম্যান হিসেবে অনেক প্ল্যান আছে এবং ওখানে অনেক কিছু করতে পারব। বিসিবি যদি আমাকে ম্যানেজারের দায়িত্ব দেয়, তাহলে আমাকে দীর্ঘ মেয়াদে না দিলে আমি আমার দায়িত্বটা ঠিকভাবে পালন করতে পারব না। এর মানে হলো একটা সমন্বয় রক্ষা করা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন