৯০০ শিক্ষার্থীকে মুজিব কোট দিলেন কাউন্সিলর মানিক

প্রকাশিত: মার্চ ২৯, ২০২১ / ০১:০২অপরাহ্ণ
৯০০ শিক্ষার্থীকে মুজিব কোট দিলেন কাউন্সিলর মানিক

পুরান ঢাকার লালবাগের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে ৯০০ মুজিব কোট ও ৩৫০টি পাঞ্জাবি বিতরণ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিক।

রোববার (২৮ মার্চ) লালবাগের আজিমপুর সরকারি কলোনি ঈদগাহ মাঠে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব উৎসব’-এ এগুলো বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে এ উৎসবের আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব উৎসব উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটি। গত ১৭ মার্চ থেকে শুরু হওয়া এই উৎসব চলবে ৩০ মার্চ পর্যন্ত।

কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিকের উদ্যোগে ষষ্ঠবারের মতো এ উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব উৎসব উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক মানিক।

তার এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধ এবং বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানাতে এ ধরনের উদ্যোগ প্রশংসার দাবিদার। এভাবেই আগামী প্রজন্ম দেশপ্রেমিক হয়ে উঠবে। দেশের জন্য কাজ করবে।

হাসিবুর রহমান মানিক বলেন, এই উৎসবের মাধ্যমে তরুণ প্রজন্ম বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা সম্পর্কে জানতে পারবে। এখানে বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন ছবি দিয়ে গ্যালারি সাজানো হয়েছে। খেলাধুলার সরঞ্জাম রাখা হয়েছে। বসেছে হরেক রকমের দোকান।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব উৎসবে দলমত-নির্বিশেষে সমাজের সব শ্রেণির মানুষ অংশগ্রহণ করছেন। তাদের এই স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে প্রমাণ করে তারা বঙ্গবন্ধুকে অনেক ভালোবাসেন।

রোববার বিকেলে সরেজমিনে দেখা যায়, মাঠের চারপাশে বসেছে হরেক রকমের দোকান এবং বিভিন্ন ধরনের রাইড। চলছে বঙ্গবন্ধুর ছবি আঁকার প্রতিযোগিতা। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পৃথকভাবে অংশ নিয়েছে রচনা প্রতিযোগিতায়। ৫ থেকে ১০ বছরের শিশুরা অংশ নিয়েছে বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতায়। মাঠের মাঝে চারপাশের চেয়ার গোল করে বালিশ খেলা প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন ৫০ জনের বেশি নারী। নাগরদোলায় দুলছে শিশু-কিশোররা।

অনুষ্ঠানে আজিমপুর, পলাশী, রসুলবাগ, হাজারীবাগ, ইসলামবাগসহ পুরান ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অংশ নেন। পরে খেলায় বিজয়ীদের দেয়া হয় বিভিন্ন ধরনের পুরস্কার। ৩০ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই উৎসব চলবে।

সূত্র : জাগো নিউজ

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন