কোম্পানীগঞ্জে স্বাধীনতা দিবস পালন করতে পারেনি আ’লীগ

প্রকাশিত: মার্চ ২৬, ২০২১ / ১১:৫৪অপরাহ্ণ
কোম্পানীগঞ্জে স্বাধীনতা দিবস পালন করতে পারেনি আ’লীগ

সারা দেশে মহাধুমধামে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালিত হলেও নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের কোথাও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী বা মহান স্বাধীনতা দিবস পালন করতে দেয়া হয়নি আওয়ামী লীগ বা অঙ্গ সংগঠনকে।

এ ব্যাপারে বসুর হাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেন, বসুর পৌরসভার পক্ষ থেকে জাঁকজমকপূর্ণভাবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মহান স্বাধীনতা দিবস পালনের আয়োজন করা হয়েছিল। কিন্তু স্বাধীনতার নেতৃত্ব দানকারী দলের ক্ষমতাসীন নেতার ষড়যন্ত্রের কারণে বসুরহাটসহ গোটা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় নেয়া সব কর্মসূচি প্রশাসন বন্ধ করে দিয়েছে।

তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর খুনিদের আমলেও আওয়ামী লীগের দুর্দিনে ও আমরা স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস পালন করেছিলাম কিন্তু আজ আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র ক্ষমতায়, আর এখানকার এমপি সে দলের সাধারণ সম্পাদক আবার গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীও তিনি। অথচ ২০২১ সালে আমরা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মহান স্বাধীনতা দিবসের আনন্দ উৎসব তো দূরের কথা কোনো কর্মসূচিই পালন করতে দেয়া হয়নি আমাদের।

কাদের মির্জা বলেন, কোনো কর্মসূচি পালন করতে না তাই সকাল থেকে মাস্ক বিতরণসহ সাধারণ মানুষ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মানুষের মধ্যে আট মণ মিষ্টি বিতরণ করিয়েছি। বাদ জোহর প্রতিটি মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বৃহস্পতিবার ৬০ হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ করেছিলাম, সেখানেও পুলিশি বাঁধার সম্মুখীন হয়ে পৌর বটতলার এসে বিতরণ করি।এটা কিসের আলামত? জনতার ধৈর্যের একটা সীমা আছে।তারপরও তিনি তার নেতাকর্মীদের ধৈর্য ধরার আহ্বান জানান।

এ দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান জানান প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞার কারণে এবং কোম্পানীগঞ্জের মানুষের নিরাপত্তা ও শান্তির কথা ভেবে তারা তাদের সব কর্মসূচি ও বাতিল করেছেন।

যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় পুলিশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বলে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহিদুল হক রনি জানিয়েছেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন