তারেক অনেকবার আমার সঙ্গে শারি’রীক সম্পর্ক করেছে

প্রকাশিত: মার্চ ২১, ২০২১ / ০৪:০৩অপরাহ্ণ
তারেক অনেকবার আমার সঙ্গে শারি’রীক সম্পর্ক করেছে

নাটোরের গুরুদাসপুরে বিয়ের দাবি নিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে দুইদিন ধরে অনশন করছেন এক কলেজ ছাত্রী (১৯)। শনিবার (২০ মার্চ) অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে এ ঘটনার পর থেকে প্রতারক প্রেমিক তারেক হাসান পলাতক রয়েছেন। তারেক হাসান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বিয়ের দাবিতে শুক্রবার থেকে প্রেমিক তারেক হাসানের বাড়িতে অবস্থান নেন অনার্স প্রথম বর্ষের ওই শিক্ষার্থী। কিন্তু প্রেমিক তারেক পলাতক থাকায় তার স্বজনরা ওই শিক্ষার্থীকে শারীরিক নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। ওই শিক্ষার্থী দুদিন ধরে অনশনে থেকে অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাকে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ভুক্তভোগী কলেজ ছাত্রী বলেন, ‘একবছর আগে উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের মহারাজপুর গ্রামের (মুক্তবাজার) কাচু মণ্ডলের ছেলে তারেক হাসানের সাথে আমার মুঠোফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বাসার পাশে তারেকের মাছ চাষের পুকুর থাকায় প্রায়ই দুজন নিভৃতে দেখা করতাম।’

‘বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তারেক অনেকবার আমার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছে’ বলেও জানান ওই ছাত্রী গত শুক্রবার (১৯ মার্চ) বিয়ের আশ্বাসে বাসায় আসার কথা বলে তাকে রেখে কৌশলে তারেক পালিয়ে যায়।

গুরুদাসপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শারমিন জাহান বলেন, মেয়েটি মহিলা ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছে। তার শারীরিক দুর্বলতা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এদিকে তারেকের বাবা কাচু মণ্ডল ওই তরুণীকে শারীরিক নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ছেলে বাসায় আসলে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করে নেয়া হবে।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক বলেন, এ ঘটনায় ওই তরুণীর পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন