২৬ পৌরসভার একটিতে জয় পেয়েছে বিএনপি

প্রকাশিত: ফেব্রু ২৮, ২০২১ / ১১:২৭অপরাহ্ণ
২৬ পৌরসভার একটিতে জয় পেয়েছে বিএনপি

পঞ্চম ধাপে দেশের ২৯টি পৌরসভার ভোটগ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এর মধ্যে ২৬টি পৌরসভায় প্রার্থী দেয় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি। এর মধ্যে শুধু বগুড়া পৌরসভায় জয় পেয়েছে তাদের প্রার্থী।

বগুড়া পৌরসভায় বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপির প্রার্থী মো. রেজাউল করিম বাদশা। তিনি ৮২ হাজার ২১৭ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন বলে জানিয়েছেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুব শাহ। ভোট গণনা শেষে তিনি এ তথ্য জানান।

বগুড়া পৌরসভা দেশের সর্ববৃহৎ পৌরসভা। এই পৌরসভার মোট আয়তন ৭০ বর্গ কিলোমিটার। ২১টি ওয়ার্ড নিয়ে বগুড়া পৌরসভা গঠিত। ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ৭৫ হাজার ৮৭০ জন। বগুড়া পৌরসভায় পুরুষ ভোটারের চেয়ে নারী ভোটারের সংখ্যা বেশি। এক লাখ ৩৪ হাজার ৯০৬ জন পুরুষ ভোটার। নারী ভোটার এক লাখ ৪০ হাজার ৯৬৪ জন।

আজ দেশের ২৯টি পৌরসভায় নির্বাচন হয়। এর মধ্যে ঝিনাইদহের মহেশপুর, মাদারীপুরের শিবচর ও চট্টগ্রামের মীরসরাই পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী ছিল না। শিবচর ও মীরসরাইয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা।

আজ সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টানা ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ শেষে গণনা শুরু করে নির্বাচনি কর্মকর্তারা। এরপর ভোট গণনা শেষে রাত ৯টার দিকে টিটু মিলনায়তনে ফলাফল ঘোষণা করেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুব শাহ।

মাহবুব শাহ জানান, বেসরকারি ফলাফলে ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী মো. রেজাউল করিম বাদশা বিজয়ী হয়েছেন। তিনি ৮২ হাজার ২১৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. আব্দুল মান্নান আকন্দ। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জগ প্রতীকে পেয়েছেন পাঁচ হাজার ৬০৯ ভোট। ফলাফল ঘোষণার পরপরই মো. রেজাউল করিম বাদশা ও তাঁর সমর্থকেরা উল্লাসে ফেটে পড়েন। পরে তারা আনন্দ মিছিল বের করেন।

সকাল থেকে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। ভোটকে শান্তিপূর্ণ করতে ১৩০টি ভোটকেন্দ্রে মোট এক হাজার ৫০০ জন পুলিশ সদস্য ও এক হাজার ৫০০ আনসার ও ভিডিপি সদস্য দায়িত্ব পালন করেছেন। এ ছাড়া সাতটি স্ট্রাইকিং ফোর্স ও নির্বাচনে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে ১৬ প্লাটুন বিজিবি মাঠে ছিল।

বগুড়া পৌরসভায় এবার মেয়র পদে লড়েছেন চারজন প্রার্থী। তাদের মধ্যে বিএনপির প্রার্থী মো. রেজাউল করিম বাদশা জয় লাভ করেছেন। এ ছাড়া লড়েছেন আওয়ামী লীগের মো. আবু ওবায়দুল হাসান (নৌকা), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন (হাত পাখা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মান্নান আকন্দ (জগ)।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন