শ্রীলঙ্কায় ৯ মুসলিম মন্ত্রী ও ২ গভর্নরের পদত্যাগ

শ্রীলঙ্কায় মন্ত্রিসভা থেকে ৯ মুসলিম মন্ত্রী ও ২ জন প্রাদেশিক গভর্নর সোমবার পদত্যাগ করেছেন। সোমবার এক সংবাদ সম্মেলেনের মাধ্যমে নিজেদের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন এসব মুসলিম নেতারা।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, ইস্টার সানডে প্রার্থনায় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার তদন্তে নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে তারা এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাদের সঙ্গে দুই প্রাদেশিক গভর্নরও ছেড়ে দিয়েছেন দায়িত্ব। তারাও মুসলিম।

মন্ত্রিসভার এসব সদস্যের বিরুদ্ধে জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে তাদের ভালো সম্পর্ক ছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। মন্ত্রিসভা থেকে তাদের সরানোর দাবিতে কয়েকদিন আগে বিক্ষোভও হয় রাজধানী কলম্বোয়।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, শ্রীলঙ্কার আঞ্চলিক ইসলামিক সংগঠন ন্যাশনাল তাওহিদ জামায়াতের (এনটিজে) সঙ্গে তিন মন্ত্রীর যোগসাজশ রয়েছে। ওই বিক্ষোভের প্রেক্ষিতেই পদ থেকে ইস্তফার সিদ্ধান্ত নেন মুসলিম মন্ত্রীরা।

দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়া এসব মন্ত্রীরা জানান, সিআইডি তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তারা মন্ত্রিসভায় ফিরবেন না।

গির্জায় হামলার পরবর্তীতে মুসলিমরা সহিংসতার শিকার হয় দেশটিতে। সংবাদ সম্মেলনে তারা দাবি করেন, মুসলিমদের নিরাপত্তা দিতে সরকারের অক্ষমতা প্রকাশ পেয়েছে।

শ্রীলঙ্কায় মোট জনসংখ্যা ২১ মিলিয়নের মধ্যে মাত্র ৯ শতাংশ মুসলিম রয়েছে। দেশটির মন্ত্রিসভায় প্রতিনিধিত্ব করছে ১৯ জন মুসলিম নেতা।

গত ২১ এপ্রিল দেশটির খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ওপর আত্মঘাতী এক সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হন ২৫৩ জন মানুষ। আহত হন আরও ৫০০ জন।

এদিন তিনটি গির্জা এবং তিনটি হোটেলে এক যোগে মোট ছয়টি বিস্ফোরণ ঘটে। একইদিন আরও দুই জায়গায় হামলার ঘটনা ঘটে।

এ হামলার জন্য এনটিজে’কে দায়ী করে শ্রীলঙ্কা সরকার। পরবর্তীতে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন আইএস এ সন্ত্রাসী হামলার দায় স্বীকার করে। এনটিজে-কে দিয়েই এ হামলা চালায় আইএস। তবে ভয়াবহ হামলার পেছনে আরও কয়েকটি গোষ্ঠী দায়ী বলে দাবি করে পুলিশ।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত