তীব্র চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে যাচ্ছেন মমতা

বিজেপি এবার পশ্চিমবঙ্গেও তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলেছে। পশ্চিমবঙ্গের ৪২ টি আসনের মধ্যে তৃণমূল পেয়েছে ২২টি আসন অন্যদিকে বিজেপি পেয়েছে ১৮টি আসন। এই অবস্থায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পড়তে যাচ্ছেন তীব্র চ্যালেঞ্জের মুখে।

ভোট গণনা শুরুর পর থেকে পশ্চিমবঙ্গেও বুথ ফেরত জরিপের পূর্বাভাস সত্য হওয়ার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল। ২০১২ সাল থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দায়িত্ব পালন করে আসলেও প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায়, গত কয়েক বছরে পশ্চিমবঙ্গে শক্ত অবস্থান গড়তে সক্ষম হয়েছে নরেন্দ্র মোদির বিজেপি।

২০১৪ সালে পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিজেপি মাত্র ২টি আসন পেলেও এবার রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের দুর্গে শক্তভাবে হানা দিয়েছে গেরুয়া শিবির। ফলে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পড়তে যাচ্ছেন তীব্র চ্যালেঞ্জের মুখে। এর আগে ২০১৮ সালেও পশ্চিমবঙ্গের দুটি উপনির্বাচনে দ্বিতীয় স্থান দখলে সমর্থ হয় বিজেপি।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গ থেকে নির্বাচনে জয় পেয়েছেন বেশিরভাগ তারকা প্রার্থীরা। বসিরহাটে তৃণমূলের তারকা প্রার্থী নুসরাত জাহান, যাদবপুরে মিমি চক্রবর্তী এবং ঘাটাল থেকে চিত্রনায়ক দেব জয় পেয়েছেন। অন্যদিকে আসানসোল ও হুগলি আসন থেকে জয়ের হাসি হেসেছেন বিজেপির বাবুল সুপ্রিয় এবং লকেট চট্টোপাধ্যায়।

বসিরহাটের তৃণমূল প্রার্থী নুসরাত বলেন, মানুষজন আমার ওপর বিশ্বাস করেছে বলে আমি তাদের ওপর কৃতজ্ঞ।

অন্যদিকে রাজনীতিকদের মধ্য থেকে জয় পেয়েছেন তৃণমূলের শীর্ষ নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, আর বিজেপি থেকে রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং নিশিত প্রামানিকের মতো প্রার্থীরা।

পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি জয় পেয়ে উল্লাসে ফেটে পড়ে। তাদের পরবর্তী লক্ষ্য এবার দিল্লি।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত