টয়লেট থেকে উদ্ধার শিশুটির ঠিকানা আজিমপুরের ছোটমনি নিবাসে

হাসপাতালের টয়লেট থেকে উদ্ধার হওয়া শিশুটির ঠিকানা হলো আজিমপুরের ছোটমনি নিবাসে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ছোটমনি নিবাসের কর্মকর্তাদের কাছে শিশুটিকে তুলে দেওয়া হয়। নবজাতকটির নাম রাখা হয়েছে গহিন।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের শিশু হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শিশুটি উদ্ধারের পর থেকেই তার দেখাশোনা করছিলেন হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার রাসেল মাহমুদ ও তার স্ত্রী পলি বেগম। এই দম্পতির কোনো সন্তান নেই। তাই তারা এই বাচ্চাকে দত্তক নিতে চান।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, নিয়ম অনুযায়ী সরাসরি এভাবে হাসপাতাল থেকে কোনো শিশুকে হস্তান্তরের নিয়ম নেই। কোনো শিশুকে পাওয়া গেলে তাকে চিকিৎসা দিয়ে আজিমপুরের শিশু নিবাসে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখান থেকে শিশুদের দত্তক নিতে আগ্রহী দম্পতিরা পারিবারিক আদালতে মামলা করেন। এরপর আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হয়। গহিনের ক্ষেত্রে তাই করা হবে।

মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালের টয়লেট থেকে এক দিন বয়সের এই নবজাতককে উদ্ধার করে কেবিনে ভর্তি করা হয়। নবজাতকটির বাবা-মাকে খুঁজতে এদিন রাতেই ডিসি-তেজগাঁও-ডিএমপি ফেসবুক পেজে ছবিসহ একটি পোস্ট দেওয়া হয়। এরপর থেকে অনেক ফোন আসতে থাকে পুলিশের কাছে।

ফোন করা ব্যক্তিরা শিশুটিকে দত্তক নেওয়ার কথা জানান। এছাড়া শিশুটিকে দত্তক নিতে হাসপাতালেও ভিড় জমে। নিরাপত্তা ও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সেখানে মোতায়েন করা হয় পুলিশ। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শিশু গহিনের বয়স আনুমানিক চার দিন।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত