১২১ বছর বয়সী হাতেম আলীর মেলেনি বয়স্ক ভাতা

বয়সের ভারে ন্যুব্জ। লাঠি হাতে শরীরের ভারসাম্য রক্ষা করে কোনোমতে চলাফেরা করেন ১২১ বছর বয়সী হাতেম আলী। শরীরে আগের মতো শক্তি নেই। কাজ করার মতো বল পান না। কেউ খাবার দিলে খান, নাহলে অনেক সময় থাকতে হয় উপোস। শেষ জীবনে নানা অপ্রাপ্তির মাঝে বয়স্ক ভাতাও জোটেনি শত বছর পেরোনো হাতেমের ভাগ্যে। বয়স্ক ভাতা পেতে সর্বনিম্ন ৬৫ বছর বয়সসীমা ধরা হলেও তার দ্বিগুণ বয়সেও বয়স্ক ভাতা পচ্ছেন না ওই বৃদ্ধ।

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার পাথরাইল ইউনিয়নের চিনাখোলা গ্রামের মৃত নছের মন্ডল ও মৃত ময়রী বেগমের সন্তান হাতেম আলী। ছয় মেয়ে ও পাঁচ ছেলে সন্তানের জনক হাতেম ইউনিয়নের সর্বোচ্চ বয়স্ক ব্যক্তি বলে স্থানীয়দের ধারণা।

জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী তার জন্মসাল ১৯১৩। সে হিসাবে হাতেম আলীর বর্তমান বয়স ১০৬ বছর। স্থানীয় শত বছরের একাধিক বৃদ্ধ জানিয়েছেন, হাতেমের বয়স আরও অনেক বেশি হবে। তবে হাতেম আলীর দাবি তাঁর বয়স ১২১ বছর। এলাকার এমন একজন বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি বয়স্ক ভাতা না পাওয়ায় সমালোচনায় পড়েছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

জানা গেছে, বয়স্ক ভাতা পেতে দীর্ঘদিন তিনি চৌকিদারের (গ্রাম পুলিশ) পেছনে ঘুরেছেন। পরে জানতে পারেন চৌকিদারের এই দায়িত্ব না। পরে পাথরাইল ইউনিয়নের স্থানীয় ইউপি সদস্য (মেম্বার), চেয়ারম্যানের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি। তার প্রশ্ন “আর কত বয়স হলে আমি বয়স্ক ভাতা পাব? এমন প্রশ্ন তার স্বজনদেরও।

হাতেম আলী বলেন, ‘আমি কয়েকবার স্থানীয় ইউপি সদস্যের কাছে বয়স্ক ভাতার হন্য অনুরোধ করেছি। সাবেক ইউপি সদস্যের কাছেও অনুরোধ করেছি। কিন্তু কেউ তাকে বয়স্ক ভাতার কার্ড দেয়নি। নির্বাচনের আগে প্রার্থীরা তাকে কার্ড দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও নির্বাচনের পর নির্বাচিত প্রতিনিধিরা আর কোনো খোঁজ নেননি।’ সেজন্য বয়স্ক ভাতা পেতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানান তিনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মীর আনিছুর রহমান জানান, হাতেম আলীর জাতীয় পরিচয়পত্রে একটু সমস্যা ছিল। এজন্য তার কার্ড হয়নি। তবে উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত বয়স্ক ভাতার কার্ডের ব্যবস্থার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

পাথরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হানিফুজ্জামান লিটন বলেন, সম্প্রতি একটি তালিকা অনুমোদন হয়েছে। আগে জানলে এই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা যেত। আগামী জুন মাসে নতুন তালিকা হবে। তখন অবশ্যই হাতেম আলীর নাম বয়স্ক ভাতার আওতায় আনা হবে।

দেলদুয়ার উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মোবারক হোসেন বলেন, ‘এখনও এরকম বয়স্ক লোক বয়স্ক ভাতার আওতায় পড়েনি আমার জানা ছিল না।’ আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে হাতেম আলীর বয়স্ক ভাতার কার্ড দেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত