রাতে ‘ডেটিং’ করতে গিয়ে ধরা পড়লেন রণবীর-আলিয়া

রাতের আঁধারে ডেটিং করতে গিয়ে ভাট পরিবারের বাড়িতে ধরা পড়লেন তারকা অভিনেতা রণবীর কাপুর-আলিয়া ভাট। এই গোপন ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে ভাইরাল হয়ে গেছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে রাতের আঁধারে গোপনে ডেটিং করছে এই জুটি। এদর মধ্যে প্রেম রয়েছে বলেও অনেক গুঞ্জন শোনা গেছে।

রণবীর-আলিয়ার প্রেমের কথা এখন আর কারো অজানা নয়। এখন মাঝে মধ্যেই তাদের বিভিন্ন জায়গায় একসঙ্গে দেখা যায়। যদিও শুরুতে তারা প্রেমের সম্পর্কটি লুকিয়ে রাখেন। পরে তা সামনে চলে আসে। গত শনিবার রাতে ফের একসঙ্গে দেখা যায় তারকা জুটিকে। রণবীর-আলিয়াকে দেখতে পেয়ে ক্যামেরার ফ্ল্যাশ পরপর ঝলসে ওঠে।

এনডিটিভির একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার রাতে প্রযোজক করণ জোহরের ধার্মা প্রোডাকশনের অফিসে দেখা গেল রণবীর কাপুর এবং আলিয়া ভাটকে। তারা দুজনই কালো রংয়ের পোশাক পড়েছিলেন। রণবীর এসেছিলেন একেবারে ক্যাজুয়াল পোশাকে। কালো টি শার্ট ও ম্যাচিং কালো ট্রাক প্যান্টে।মাথায় ছিল একটি টুপি।

আর অভিনেত্রী আলিয়ার পরনে ছিল একটি গোলাপি রঙের ট্যাঙ্ক টপ ও সঙ্গে কালো ট্রাক প্যান্ট এবং কালো জ্যাকেট। চুলটা খোঁপা করে বেঁধেছিলেন নায়িকা। পরস্পরের প্রতি ভালোলাগা-ভালোবাসার সবার সামনে প্রকাশ ও শেয়ার করাও শুরু করেছেন এই দুই তারকা। জি সিনে অ্যাওয়ার্ডের মঞ্চে রণবীর-আলিয়ার গালে একটি আলতো চুমু এঁকে দেন।

আবার ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডে গিয়ে আলিয়া ভাট সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার গ্রহণের সময় মঞ্চ থেকেই সকলের সামনে স্পষ্ট বলেন, ‘আজকের রাত ভালোবাসার রাত, ওইখানে আমার বিশেষ মানুষটি বসে, আই লাভ ইউ রণবীর।’

রণবীর কাপুর-আলিয়া ভাটের রোমান্স নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয় যখন ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ ছবিতে একসঙ্গে শুটিং শুরু করেন তারা। প্রথম তাদের দুজনকে একসঙ্গে দেখা যায়, সোনম কাপুর ও আনন্দ আহুজার বিয়ের রিসেপশনে। গত বছর মুম্বাইয়ে সেই অনুষ্ঠান হয়েছিল। এর পরে ডিসেম্বরের শেষে নিউ ইয়ার সেলিব্রেট করতে রণবীরের পরিবারের কাছে প্রেমিকের সঙ্গেই উড়ে যান আলিয়া। কারণ রণবীরের বাবা-মা ঋষি ও মা নীতু কাপুর চিকিৎসার প্রয়োজনে নিউইয়র্কে রয়েছেন।

অয়ন মুখার্জি পরিচালিত ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ ছবিতে একসঙ্গে দেখা যাবে আলিয়া-রণবীরকে। এছাড়াও এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন বলিউড শাহেনশা অমিতাভ বচ্চন, ডিম্পল কপাডিয়া, আক্কিনেনি নাগার্জুন এবং মৌনি রায়।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত