একটি বাউন্ডারি মেরে বিখ্যাত হয়ে আছেন যে ক্রিকেটার

জাতীয় দলের হয়ে অল্প কয়েকটা ম্যাচ খেলেছেন। তেমনভাবে সফল না হওয়ায় বাদও পড়েছেন দ্রুত। কিন্তু পরিচিত হয়ে রয়েছেন কিছু অসাধারণ পারফরম্যান্সের জন্য। ভারতীয় ক্রিকেটের সেই প্রতিভাবান অল-রাউন্ডার হলেন হৃষিকেশ কানিতকর। ১৯৯৪-১৯৯৫ মৌসুমে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে আভিষিক্ত হৃষিকেশ ভারতের হয়ে মাত্র ৩৪টি ওয়ানডে খেলেছিলেন। রান ৩৩৯ এবং উইকেট ১৭টি। বাঁ হাতি এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দুটি টেস্টও খেলেছেন।

১৯৯৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। ম্যাচটি ছিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।১৯৯৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মেলবোর্নে টেস্ট ম্যাচে ডেবিউ হয় কানিতকরের। অজয় জাদেজার পরিবর্তে নেওয়া হয় তাকে। দুই ইনিংসে যথাক্রমে ২১ বলে ১১ ও ৭৮ বলে ৪৫ রান করেছিলেন তিনি।

রাজস্থানের হয়ে তিনি রঞ্জি খেলতেন। ২০১৩ ডিসেম্বরে রাজ্যের হয়ে শেষ ম্যাচ খেলেছেন। শেষ ম্যাচে ২০৭ বলে ৫২ রান করেছিলেন তিনি। রঞ্জি ট্রফিতে তার ২৮টি সেঞ্চুরি ভারতীয় ক্রিকেটের রেকর্ডবুকে যুগ্ম ভাবে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। ফিল্ডিংয়েও তিনি অনবদ্য ছিলেন। তিনি পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি ম্যাচে ইনজামাম উল হকের একটি অসাধারণ ক্যাচ নিয়েছিলেন। ২০১৫ সালের জুলাইে অবসর নেওয়ার কিছু দিন পরই গোয়া রঞ্জি টিমের কোচ হিসাবে কাজ শুরু করেন জাতীয় দলের সাবেক এই তারকা।

ভারতের জাতীয় দলের হয়ে একটি বিশেষ ইনিংস তাকে অমর করে রেখেছে। ১৯৯৮ সাল। ঢাকার মাটিতে ইনডিপেন্ডেন্স কাপ ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলা ছিল ভারতের। তার হাত ধরেই সেদিন জিতেছিল ভারত। ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে সাকলাইন মুশতাককে চার মেরে ভারতকে জেতানো ইনিংস আজও সবাই মনে রেখেছে। এখন পুরদস্তুর কোচিং পেশায় জড়িয়ে গেলেও ওই একটি বাউন্ডারির জন্য ক্রিকেটার কানিতকর সবার মনে জায়গা করে নিয়েছেন।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত