বিশ্বকাপে শচীনের যে ৪ রেকর্ড ভাঙ্গা অসম্ভব!

আগামী ৩০ মে দ্যা ওভালে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচের মধ্য দিয়ে পর্দা উঠবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের। তাই বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বিগত আসরগুলোর নানা রেকর্ড নিয়ে আলোচনা চলছে। সেক্ষেত্রে ঘুরে ফিরে আসছে শচীন টেন্ডুলকারের নাম। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে ভারতের হয়ে ৬টি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছেন তিনি। মাত্র ১৯ বছর বয়সে ১৯৯২ বিশ্বকাপে প্রথমবার অংশ নেয়া এই ‘লিটল মাস্টার’ প্রায় দুই দশক পর ২০১১ আসরে এই মেগা ইভেন্টে শেষ ম্যাচ খেলেন।

বিশ্বকাপে শচীন টেন্ডুলকারের চারটি এমন রেকর্ড আছে যা কখ্নই হয়তো ভাঙবে না। দেখে নেওয়া যাক সেই রেকর্ডগুলো:

১. বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ইনিংস : ক্যারিয়ারে ৬টি বিশ্বকাপে ভারতের হয়ে টেন্ডুলকার খেলেছেন ৪৪টি ইনিংস। এই ক্ষেত্রে তার সবচেয়ে কাছের প্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিং। বিশ্বকাপে যিনি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৪২টি ইনিংস খেলেছেন। বর্তমান ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বাধিক ২৬ ইনিংস রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইলের। টেন্ডুলকারের জীবদ্দশায় তার এই রেকর্ড ভঙ্গ করা আক্ষরিক অর্থেই অসম্ভব এবং সম্ভবত এটা কখনো ভঙ্গ হবেও না। সুতরাং বিশ্বকাপ ইতিহাসে টেন্ডুলকারের এই চারটি রেকর্ড কখনোই ভাঙ্গবে না।
২. বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস : বিশ্বকাপ মঞ্চে ২১ বার ৫০+ রান করেছেন টেন্ডুলকার। ১৫টি হাফ সেঞ্চুরি এবং ৬টি সেঞ্চুরিতে ক্রিকেট বিশ্বকাপে তার পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস সংখ্যা ২১ টি। বিশ্বকাপে মাত্র ১২টি পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস রয়েছে শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারার। বর্তমান ক্রিকেটারদের মধ্যে বিশ্বকাপে পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস রয়েছে মাত্র ছয়টি।

৩. বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি রান : বিশ্বকাপে দুই হাজারের বেশি রান করা একমাত্র ক্রিকেটার টেন্ডুলকার। ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে বড় এই টুর্নামেন্টে ৪৫ ম্যাচে ৫৬.৯৫ গড়ে ছয় সেঞ্চুরি ও ১৫ হাফ সেঞ্চুরিতে তার মোট রান ২,২৭৮। তার সবচেয়ে কাছের প্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার রিকিং পন্টিংয়ের রান ৫৩৫। বর্তমান ক্রিকেটারদের মধ্যে ক্রিস গেইল করেছেন মাত্র ৯৪৪। যা টেন্ডুলকারের ধারে-কাছেও না।

৪. বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি বাউন্ডারি : বিশ্বকাপে ২০০র বেশি বাউন্ডারি মারা একমাত্র ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার। বিশ্বকাপে ৪৫ ম্যাচে এই মাস্টার ব্লাস্টার মোট ২৪১টি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন। টেন্ডুলকারের পরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৯৬ বাউন্ডারি আছে অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিংয়ের। বর্তমান ক্রিকেটারদের মধ্যে এমনকি কেউ এখন পর্যন্ত ৯০ বাউন্ডারিও হাঁকাতে পারেননি। সুতরাং সে বিবেচনায় টেন্ডুলকারের বাউন্ডারির রেকর্ডটি বাকি সময়ে অক্ষুণ্ন থেকে যাবে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত