নেত্রী মুক্তি পেলে আমরা শপথে যেতে পারি, বলেছেন বিএনপি থেকে বিজয়ী জাহিদুর রহমান

দলীয় সিদ্ধান্তকে সম্মান দেখিয়ে এখনো শপথ নেয়নি একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচনে বিএনপি থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা। ৩০ শে এপ্রিলের মধ্যে শপথ না নিলে শূন্য ঘোষনা করা হতে পারে তাদের আসন। এদিকে খালেয়া জিয়ার মুক্তি হলে জাতীয় সংসদে যেতে আপত্তি নেই বিএনপি থেকে নির্বাচিত অধিকাংশ সংসদ সদস্যের। তারা বলছেন সংসদে যাওয়ার জন্য খালেদা জিয়ার সম্মতির অপেক্ষায় আছেন। অন্যদিকে দলের অনেক সিনিয়র নেতারা মনে করেন খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে সরকার রাজনীতি করছে। ইনডিপেন্ডেন্ট

শপথ নেয়ার বিষয়ে এলাকাবাসীর চাপ রয়েছে জানিয়ে সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী জাহিদুর রহমান বলেন, যেহেতু আমার নেত্রী জামিন পেতে হকদার, তাই তাকে যদি জামিন দেয়া হয় তাহলে আমরা বিজয়ী ছয় জন সংসদে যেতে পারি বা যাবো।

নির্বাচনে বিজয়ী হারুন-অর-রশিদ জানান, নেত্রীর অনুমতি পেলে আমরা সংসদে যেতে পারি, তবে দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে শপথ নেয়ার কোনো সুযোগ নেই।

অন্যদিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী মনে করেন, সবকয়টি মামলায় জামিন পাওয়ার অধিকার খালেদা জিয়ার রয়েছে। কারণ হত্যা মামলার আসামিও জামিন পায়। সরকার এ বিষয়টিকে রাজনৈতিক ভাবে ব্যবহারের চেষ্টা করছে। যা সম্পূর্ণ বেআইনী।

তবে খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য বাহিরে গেলেও কয়েকমাস পর ফিরে আসবে বলে জানান অনেক বিএনপি নেতা।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত