নেপালে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে দুই পুলিশসহ নিহত ৩

নেপালের এভারেস্ট অঞ্চলের একমাত্র বিমানবন্দরে উড্ডয়নের সময় একটি ছোট বিমান বিধ্বস্ত হলে অন্তত তিনজন নিহত হয়েছেন। রোববারের সকালে লুকলা বিমানবন্দরে পার্ক করা আরও দুটি বিমানের ওপর এটি বিধ্বস্ত হলেও আরও চারজন আহত হন। অবতরণ ও উড্ডয়নের জন্য সবচেয়ে কঠিন বিমানবন্দর হিসেবে এটির দুর্নাম রয়েছে।-খবর এএফপি ও হিন্দুস্থান টাইমসের।

বিমান কর্মকর্তা রাজ কুমার চিত্র বলেন, উড্ডয়নের সময় হেলিপ্যাডের দিকে পিছলে যায় বিমানটি। এরপর দুটি বিমানের সঙ্গে ধাক্কা খায়। আহতদের চিকিৎসার জন্য কাঠমান্ডু পাঠানো হয়েছে। তবে দুর্ঘটনার কারণ বর্ণনা করতে পারেননি তিনি। বিমানবন্দরের আরেক কর্মকর্তা ইমা নাথ অধিকারী বলেন, সামিট এয়ারের তুরবো-প্রপ লেট-৪১০ বিমানের সহ-পাইলট কাঠমান্ডুর উদ্দেশ্যে বিমানটি উড্ডয়ন করাচ্ছিলেন।

ঘটনাস্থলে থাকা এক পুলিশ কর্মকর্তা এ দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। দেশটির পুলিশের মুখপাত্র বলেন, হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হলে তাদের আরেক কর্মকর্তা নিহত হন। ঘটনাস্থলের ছবিতে বিমানের ছিন্নভিন্ন অংশ ও দগ্ধ হওয়া ধ্বংসাবশেষ পড়ে থাকতে দেখা গেছে। প্রতিবছর শত শত হিমালয়গামী পর্যটক ও পর্বতারোহী এ বিমানবন্দরটি ব্যবহার করেন।

এপ্রিলের দিকে পর্বতারোহীদের সংখ্যা বেড়ে যায়। কিন্তু বিচ্ছিন্ন অঞ্চল হওয়ায় হিমালয় কন্যা বলে পরিচিত নেপালের সড়ক যোগাযোগ অনেকটা দুর্গম। দুর্বল প্রশিক্ষণ ও ব্যবস্থাপনার কমতি থাকায় বিমান নিরাপত্তা একেবাবের অপ্রতুল। নেপালের বিমান নিরাপত্তা নিয়ে এর আগে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। গত ফেব্রুয়ারিতে পূর্বাঞ্চলীয় পাহাড়ি অঞ্চলে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দেশটির পর্যটনমন্ত্রীসহ সাতজন নিহত হয়েছেন।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত