মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে দুর্ঘটনায় নিহত ১২ শ্রমিক

মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে যাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২। আশঙ্কাজনক আহতদের অবস্থা এখন উন্নতির দিকে। রোববার রাত ১১টা ১০ মিনিটে কুয়ালালামপুরের কে এল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের এমএএস কার্গো, জালান এস-৮ পেকেলিলিংয়ের পাশে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় গণমাধ্যম নিউ স্ট্রেইটস টাইমস জানিয়েছে। ওই দুর্ঘটনায় পাঁচ বাংলাদেশিসহ ১২ জন নিহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় আহত হন আরো অন্তত ৩৪ জন।

নিহত বাংলাদেশিরা হলেন চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ উপজেলার দেবপুরের মো. আনোয়ারের ছেলে সোহেল (২৪) ও ফরিদগঞ্জ উপজেলার চরভাগল গ্রামের মো. আমির হোসেনের ছেলে আলামিন (২৫), কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার দুর্লভপুর গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে মহিন (৩৭) ও দাউদকান্দি উপজেলার ঢাকাগাঁও গ্রামের মো. ইউনুস মুন্সির ছেলে মো. রাজিব মুন্সি (২৭) এবং নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার নোয়াখোলা গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে গোলাম মোস্তফা (২৩)। নিহতদের লাশ বর্তমানে সেরডাং হাসপাতালে আছে।

এ ছাড়া সেরডাং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত বাংলাদেশিরা হলেন মোহাম্মদ নাজমুল হক (২১), মোহাম্মদ রজবুল ইসলাম (৪৩) ও ইমরান হোসাইন (২১) এবং পুত্রাজায়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাহিদ হাসান (২১), শামীম আলী (৩২), মোহাম্মদ ইউনুস (২৭) ও মোহাম্মদ রাকিব (২৪)। এদিকে হতাহতের ঘটনায় মালয়েশিয়া সরকার একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে যা কিছু দিনের মধ্যেই দুর্ঘটনার কারণ জানানো হবে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত