পড়া না পারায় প্রধান সড়কে এনে ছাত্রদের শাস্তি, এলাকায় তীব্র ক্ষোভ

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা পৌর শহরের মাদ্রাসাতুল মাওয়া নামের একটি মাদ্রাসায় পড়া না পারার কারণে ছাত্রদের সড়কের ওপরে কান ধরিয়ে শাস্তি দিয়েছে শিক্ষক। সোমবার দুুপরে মাদ্রাসা থেকে দুরে প্রধান সড়কে এনে জনসম্মুখে তাদের কান ধরে শাস্তি দেন মাদ্রাসার আফ্রিদি নামের ওই শিক্ষক। একেবারে জনসম্মুখে শিশু শিক্ষার্থীদের এভাবে শাস্তি দেওয়ার ঘটনায় শহরের আনন্দধাম এলাকার মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আনন্দধামের মাদ্রাসাতুল মাওয়া নামের ওই মাদ্রাসায় প্রায় ২০ জন আবাসিক শিশু ছাত্র রয়েছে। সোমবার দুপুরের দিকে শিক্ষক আফ্রিদি ৮ থেকে ১০ জন শিশু ছাত্রকে মাদ্রাসা থেকে বের করে এনে প্রধান সড়কের ওপরে লাইন করে দাঁড়াতে বলেন। এরপর সবাইকে রৌদ্রের ভেতর কান ধরে দাড়িয়ে থাকার নির্দেশ দেন। এ সময় পথচারিরা কৌতুহলী হয়ে ঘটনাস্থলে থমকে দাঁড়ান। শিশুদেরকে এভাবে শাস্তি দেওয়ারও তীব্র প্রতিবাদ করেন তারা। অবস্থা বেগতিক দেখে শিক্ষক আফ্রিদি শিশুদেরকে মাদ্রাসার ভেতরে নিয়ে যান।

ওই মাদ্রাসার এক শিশু শিক্ষার্থী তামিম জানান, ‘তাদের ৮ থেকে ১০ জনকে মাদ্রাসা থেকে বের করে প্রধান সড়কে নিয়ে যায় ওই শিক্ষক। তারপর কান ধরিয়ে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়’।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক আফ্রিদি জানান, ‘ছাত্ররা পড়া পারে নাই। তাই কান ধরে শাস্তির ব্যবস্থা করেছি’। মাদ্রাসার শ্রেনী কক্ষ রেখে হাইরোডে কেন নিয়ে গেছেন এই প্রশ্নের তিনি কোন উত্তর দেননি।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত