গরুর মাংস বিক্রির দায়ে শুকরের মাংস খেতে বাধ্য হলেন মুসলিম বৃদ্ধ!

গরুর মাংস বিক্রির ‘অপরাধে’ আসামে এক বৃদ্ধকে মারধর করে তাকে শুকরের মাংস খেতে বাধ্য করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার একটি ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ অন্তত ৫ জনকে আটক করেছে বলেও ভারতীয় কয়েকটি গণমাধ্যম জানিয়েছে। অবশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওর যথার্থতা এনডিটিভি পরীক্ষা করে দেখতে পারেনি বলেও জানিয়েছে।

এনডিটিভি জানায়, আসামের বিশ্বনাথ জেলায় রোববার ৬৮ বছর বয়সী শওকত আলী নামের ভারতীয় নাগরিককে গরুর মাংস বিক্রি করার অভিযোগে আটকে মারধর করে এক দল লোক। শুধু তাই নয়, রাস্তার মাঝে কাদায় হাটু গেড়ে পড়ে থাকা শওকতকে বাঁচার জন্য প্রাণ ভিক্ষাও করতে হয়েছে। মারধরের পর স্থানীয়রা তাকে শুকরের মাংস খেতে বাধ্য করে।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, কয়েকজন লোক শওকতকে ঘিরে ধরে বিভিন্ন প্রশ্ন জিজ্ঞেস করছে। তারা জানতে চাইছে, শওকত কি বাংলাদেশ থেকে এসেছেন? গরুর মাংস বিক্রির লাইসেন্স কি তার আছে? এনআরসি’তে (ন্যাশনাল রেজিস্টার অব সিটিজেনস) তার নাম আছে কিনা তাও জানতে চেয়েছে ওই লোকজন।

অসুস্থ শওকত বর্তমানে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় মোট দু’টি এফআইআর বা অভিযোগপত্রের ওপর ভিত্তি করে তদন্ত চলছে। তার একটি দায়ের করেছেন শওকতের ভাই।

নিজস্ব সূত্র থেকে এনডিটিভি জানায়, ওই ভিডিও থেকেই অভিযুক্তদের খোঁজা শুরু করেছে পুলিশ।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত