মাদ্রাসাছাত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার মামলা, আসামি ৪

ফেনীর সোনাগাজীর ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার ঘটনার তিনদিন পর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে।

নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বাদী হয়ে সোমবার বিকেলে সোনাগাজী মডেল থানায় অজ্ঞাত ৪ জনকে আসামি করে মামলাটি করেন।

সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, বিকেলে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে অজ্ঞাত বোরকাপরা মুখোশধারী ৪ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

তিনি জানান, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহ পুলিশ ৭ জনকে আটক করেছে। আটকরা হলেন— মাদ্রাসার প্রভাষক আফসার উদ্দিন, মাদ্রাসাছাত্র আরিফুল ইসলাম, মো. মোস্তফা, নুরুল আমিন, আলা উদ্দিন, সাইদুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন, আফসার উদ্দিন।

ইতোমধ্যে অভিযুক্ত সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো. সিরাজ উদদৌলাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এছাড়া নুসরাতের চিকিৎসা সহযোগিতার জন্য মাদ্রাসা তহবিল থেকে দুই লাখ টাকা অনুদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

নুসরাত জাহান রাফির অবস্থা সংকটাপন্ন। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়েছে।

গত শনিবার সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় আলিম পরীক্ষা দিতে গেলে কৌশলে নুসরাতকে ছাদে ডেকে নিয়ে গিয়ে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃ্ত্তরা।

এর আগে গত ২৭ মার্চ অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মামলা করেন মেয়েটির মা।

মামলা প্রত্যাহারে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীটির গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত