মঙ্গলবার সম্পন্ন হচ্ছে পদ্মাসেতুর সবচেয়ে জটিল কাজ

দ্রুতগতিতে এগুচ্ছে পদ্মাসেতুর কাজ। ইতিমধ্যে ২৪৭টি পাইলের কাজ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

এবার সেতুর সবচেয়ে জটিল ও চ্যালেঞ্জিং কাজ প্রায় শেষ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সেতু কর্তৃপক্ষ।

এর আগে জানানো হয়েছিল, খরস্রোতা পদ্মায় সেতুর মাওয়া প্রান্তের পিয়ার-৬ ও ৭ এর কাজটি সবচেয়ে বেশি কঠিন ও চ্যালেঞ্জিং। এ দুটি জটিল পিয়ারসহ পিয়ার ওঠানোর সমাধান বের করতে প্রায় একবছর কাজ পিছিয়েছিল।

আর আগামীকালের (৯ এপ্রিল) মধ্যে সেই পিয়ারগুলো বসানোর কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছে পদ্মাসেতু প্রকল্প কতৃপক্ষ।

এর মাধ্যমে সেতু গড়তে সবচেয়ে কঠিন ধাপটি পেরিয়ে যাচ্ছে সেতু কতৃপক্ষ।

মূল সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আবদুল কাদের জানান, ‘সেতুর ২৯৪টি পাইলের মধ্যে নদীতে পড়েছে ২৬২টি।’

ইতিমধ্যে ২৪৭টি পাইলের কাজ শেষ হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘২৯৪টি পাইলে ৪২টি পিয়ার উঠবে। এদের মধ্যে পিয়ার-৬ এবং পিয়ার-৭ এর কাজ সবচেয়ে কষ্টসাধ্য ছিল, যা আমরা সঠিকভাবে প্রায় সম্পন্ন করেছি।’

পিয়ার দুটিসহ আরও ১১টি পিয়ার পুনরায় নকশা করা হয় জানিয়ে তিনি বলেন, ‘পিয়ার-৬ এবং ৭ এর প্রতিটিতে ৭টি করে পাইল রয়েছে। মঙ্গলবার মূল সেতুর সবচেয়ে জটিল এই দুটি পিয়ারের পাইল বসানো কাজ শেষ হবে।’

সেতু সূত্র জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত পদ্মাসেতুর দেড় কিলোমিটার দৃশ্যমান হয়েছে। এই দেড় কিলোমিটারে বসেছে ৯টি স্প্যান। এদের মধ্যে জাজিরা প্রান্তে ৩৪, ৩৫, ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১, ৪২ পিয়ারে আটটি ও মাওয়া প্রান্তে ৫ ও ৬ নম্বর পিলারে একটি স্প্যান বসানো হয়েছে।

অন্যদিকে জাজিরা প্রান্তে রেলওয়ে বক্স বসানোর কাজ চলছে। বসানো শুরু হয়েছে রোডওয়ে স্ল্যাব।

একটি স্প্যানে ৭৪টি রোডওয়ে স্ল্যাব করে ছয় কিলোমিটারে ২ হাজার ৯৩১টি স্ল্যাব বসানো হবে বলে তথ্য দিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত