বিশ্বকাপে অধিনায়ক হিসেবে কোহলি নয়

বিরাট কোহলির অধিনায়কত্ব বরাবরই প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে আসছে। চলমান আইপিএলেও এখনো জয় পায়নি তার দল রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর। ভারতীয়রা তাই আওয়াজ তুলেছে বিশ্বকাপে কোহলিকে নেতৃত্বে না রাখার। তাদের প্রথম পছন্দ ওপেনার রোহিত শর্মা।

বলা হয়ে থাকে জাতীয় দলে মহেন্দ্র সিং ধোনির সাহায্যে উৎরে যান বিরাট কোহলি। গুঞ্জনটাকে সত্যিই অনেকটা মনে হচ্ছে চলমান আইপিএলের পরিসংখ্যান দেখে। কোহলি ছয়টি ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে একটিতেও জয় এনে দিতে পারেননি দলকে। বেঙ্গালুরুর তো বটেই ভারতের অধিনায়কত্ব থেকেও কোহলিকে অপসারণের দাবি উঠেছে।

অপরদিকে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে নেতৃত্ব দিয়ে একাধিক শিরোপা জিতিয়েছেন ওপেনার রোহিত শর্মা। এবারের আসরেও মাত্র ১৩৫ রান সংগ্রহ করেও প্রতিপক্ষকে ৯৬ রানে আটকে দিয়ে জয় তুলে নেয়ায় প্রশংসায় ভাসছেন অধিনায়ক রোহিত।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে দেখা যাচ্ছে, বেশির ভাগ মানুষই চাচ্ছেন না সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি বিশ্বকাপে ভারতকে নেতৃত্ব দেন। তাদের মতে ভারতকে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য রোহিত শর্মায় সঠিক ব্যক্তি হবেন। তার কৌশলী অধিনায়কত্ব ভারতকে এনে দিতে পারে বিশ্বকাপ।

ভারতজুড়ে ভক্তদের এই দাবি যে একেবারে ফেলে দেয়ার নয় তা কোহলি ও রোহিতের নেতৃত্বের পরিসংখ্যান দেখলেই বুঝা যায়। আইপিএলে তো বটেই ভারতের জাতীয় দলেও নিজের নেতৃত্বের পরিচয় দিয়েছেন রোহিত। কোহলির অনুপস্থিতিতে জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দিয়েও এনে দিয়েছিলেন ভালো ফলাফল।

শুধু ভারতীয় ভক্ত সমর্থকরাই না, রোহিতের নেতৃত্বের প্রশংসা করেছেন সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভনও। তিনি এক টুইট বার্তায় বলেন যে, ‘অধিনায়ক হিসেবে রোহিত শর্মা খুবই উপযুক্ত একজন।’

আইপিএলে ২০১৩ সালে প্রথম রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর নেতৃত্বে আসেন বিরাট কোহলি। সেই থেকে আজকে দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ম্যাচ পর্যন্ত ৯২টি ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন দলকে। যার মধ্যে ৫৩টিতেই হার। জয় মাত্র ৩৮টি ম্যাচে। যদিও ভিন্ন সংস্করণ, তবে বিশ্বকাপের ঠিক আগেও বিরাটের এই দুবরস্থা নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে জাতীয় দলের নেতৃত্বেও।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত