‘মার্কিন সেনাবাহিনীকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে’

রেভ্যুলুশনারি গার্ড বাহিনী নিষিদ্ধ করা হলে মার্কিন সেনাবাহিনীকে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের মতো সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে বলে হুঁশিয়ার করেছে ইরান। একইসঙ্গে ইরাক এবং ওই অঞ্চলের নিরাপত্তা এবং সার্বভৌমত্ব নিশ্চিতে দ্রুত মার্কিন সেনাদের বের করে দিতে বাগদাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি। এরমধ্যেই ইরানের একটি পারমাণবিক কেন্দ্র পরিদর্শন করে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি কমিশন জানিয়েছে, ইরানের পারমাণবিক বোমা নিয়ে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন।

১৯৭৯ সালে ইরানে ইসলামি বিপ্লবের পর প্রতিষ্ঠা করা হয় ইসলামের রেভ্যুলেশনারি গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি। ইরানের সবচেয়ে শক্তিশালী ও ক্ষমতাধর এই বাহিনীটি দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা সরাসরি নিয়ন্ত্রণ করে থাকেন। বাহিনীতে রয়েছে একলাখ ২৫ হাজার সদস্য।

এরমধ্যে তিন মার্কিন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে শনিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, শিগগিরই ইরানের রেভ্যুলেশনারি গার্ড বা হিনী নিষিদ্ধ করবে ট্রাম্প প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্রের এমন পরিকল্পনার তীব্রপ্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে তেহরান।

শনিবার এক টুইট বার্তায় দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা এবং পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক কমিটির প্রধান হেমাতুল্লাহ ফালাহাতপিশে সতর্ক করে বলেন, রেভ্যুলুশনারি গার্ড বাহিনীর বিরুদ্ধে পদক্ষেপের জবাবে মার্কিন সেনাবাহিনীকে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের মতো সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে কালো তালিকাভুক্ত করবে ইরান।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত