তিনদিন পরেই ছেলের বিয়ে,দেখে যেতে পারলেন না টেলিসামাদ

গতকাল দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে না ফেরার দেশে চলে যান বাংলা চলচ্চিত্রের বিশিষ্ট অভিনেতা টেলি সামাদ। তার ছেলে দিগন্ত সামাদ গতকাল তার ফেসবুক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাবার সাথে তোলা শেষ ছবিটি পোস্ট করেন। তিনি সেখানে লিখেন, এই ছিল আমাদের হাসি, শেষ বারের মত। আর কেও হাসবে না, কারণ হাসানোর সেই মানুষটি আজ আমাদের মাঝে নেই। ঐদিন শেষ বারের মতো দেখেছিলাম তোমাকে হাসতে, বুঝতে পারিনি যে সেটাই ছিল আমাদের শেষ হাসি। বাবা, আমাদের ভুল গুলো মাফ করে দিও। এদিকে আজ দুপুর ১২ টায় এফডিসিতে টেলি সামাদের জানাজা শেষে দিগন্ত সামাদ বলেন, তিন দিন পর আমার বিয়ে, অথচ আমার বউকে দেখে যেতে পারলো না আমার বাবা। বাবা শুধু আমার হবু স্ত্রীর ছবি দেখেছিলেন কিন্তু সামনাসামনি দেখতে পারেন নি।

অথচ তিনদিন পরেই আমার বিয়ে। সবকিছু পারিবারিকভাবেই ঠিক হয়েছে। তিনি আরও বলেন, পাত্রী নাদিয়া সুলতানা পড়াশোনা করছে। আগামী ১০ই এপ্রিল আমাদের গায়ে হলুদ এবং ১২ই এপ্রিল বিয়ের দিন ধার্য করা হয়েছে। গায়ে হলুদ এবং বিয়ে অনুষ্ঠিত হবে ফার্মগেট তেজতুরি রোডের একটি কনভেনশন সেন্টারে আর আগামী ১৩ই এপ্রিল গুলশানের অ্যাবাকাস কনভেনশন হলে অনুষ্ঠিত হবে বৌ-ভাত।

শেষ হাসির সাথে সাথে ছেলের বৌকে দেখে যেতে পারলেন না টেলি সামাদ। আজ আসরের নামাজের পর মুন্সিগঞ্জের নয়াগাঁওতে বাবা-মার পাশে সমাহিত করা হয়েছে এই বিশিষ্ট অভিনেতাকে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত