আশুগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যানের গাড়িতে হামলা, গুলিতে গ্রামপুলিশ নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান মো. আমির হোসেনর গাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা ও সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বানু দাস (৪৫) নামে গাড়িতে অবস্থানকারী এক গ্রামপুলিশ নিহত হয়েছেন।

আজ শনিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার বাহাদুরপুর-তালশহর সড়কে ইয়াছিন মিয়ার বাড়ির সামনে ওই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার বিস্তারিত জানাতে গিয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ‘আজ সকাল পৌনে ১০টার দিকে খাটিহাতা বিশ্বরোড এলাকার পাম্প থেকে গ্যাস আনতে যায় আমার গাড়ি। সে সময় সিএনজিতে করে সাত-আটজনের একটি সন্ত্রাসী দল এসে বাহাদুরপুর-তালশহর সড়কের ইয়াছিন মিয়ার বাড়ির সামনে গাড়িটি থামায়। এবং ড্রাইভারকে টানাহেঁচড়া করে গাড়ি থেকে নামায়। সে সময় গাড়িতে থাকা গ্রামপুলিশ বানু চিৎকার দেওয়ার চেষ্টা করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা বানুকে গুলি করলে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।’

আমির হোসেন আরো বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা আসলে আমাকে ও আমার বাবাকে মারতে এসেছিল। আমরা গাড়িতে না থাকায় প্রাণে বেঁচে যাই।’

এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আটক করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান।

আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ আলম বলেন, ‘ঘটনা শুনে আমি আমার ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে গ্রামপুলিশের লাশ ও ঘটনার মোটিভ উদ্ধারের চেষ্টা করি। কেন এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তা এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। তদন্তের পর বলা যাবে।’

দ্রুত এ ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ওসি। এ ব্যাপারে পুলিশের একাধিক টিম কাজ শুরু করেছে বলেও জানান তিনি।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত