প্রযোজকের সাথে রাত কাটানোর প্রস্তাব, প্রকাশ্যে নায়িকার জবাব

‘বুধিয়া সিং, বর্ন টু রান’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন অভিনেত্রী শ্রুতি মারাঠে। সম্প্রতি হিউম্যানস অফ বম্বের জন্য একটি পোস্ট করেছেন তিনি। সেই পোস্টে যৌন হেনস্তা এবং কীভাবে পরিচালক-প্রযোজকরা নায়িকাদের কু-প্রস্তাব দিয়ে রীতিমতো ধর্ষণ করেন সে বিষয়ে তিক্ত অভিজ্ঞাতার কথা শেয়ার করেছেন এই অভিনেত্রী। শ্রুতির এই শক্তিশালী পোস্টটি ইন্টারনেটে ভাইরাল। ওই পোস্টে মন্তব্য করে সকলেই তার প্রশংসা করছেন।

পোস্টে তিনি শ্রুতি লিখেছেন, ‘একজন প্রযোজকের সঙ্গে তার কাজ নিয়ে মিটিং ছিল। কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই সেই প্রযোজক ‘কম্প্রোমাইজ’, ‘একরাত’ ধরনের শব্দ ব্যবহার শুরু করেন। আমিও তাকে যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য জিজ্ঞেস করি, ‘আমাকে নায়িকা করার জন্য যদি আমার সঙ্গে আপনার শোওয়ার প্রয়োজন হয়, তাহলে নায়ক হিসেবে কোন হিরোর সঙ্গে রাত কাটিয়ে তাকে সুযোগ দিচ্ছেন? ওই প্রযোজক এটা শুনে স্তম্ভিত হয়ে যান। মিটিং থেকে বেরিয়েই আমি বাকিদের ওর এই কাজ সম্পর্কে জানাই এবং সেই কাজটি থেকে বেরিয়ে আসি।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘সেই মুহূর্তে সব থেকে বেশি জরুরি ছিল আমার ভয় না পাওয়া। আমি শুধু সে দিন নিজের পাশে দাঁড়াইনি, বহু মেয়ে যারা নিজেদের উচ্চাকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে গিয়ে কর্মক্ষেত্রে যৌন হেনস্থার শিকার হন তাদের সকলের হয়ে মেরুদণ্ড সোজা রেখেছিলাম আমি।’

নিজের লেখায় শ্রুতি জানিয়েছেন, ‘অভিনেতারা আরামের জীবন যাপন করে এটা একেবারেই ভুল ধারণা। শ্রুতি একটি টেলিভিশন শো-তে জনপ্রিয়তা লাভ করার পরে ইন্টারনেটের জনতা খুঁজে খুঁজে তার একটি পুরনো দক্ষিণী সিনেমায় বিকিনি পরা দৃশ্যের ছবি তুলে এনে শেয়ার করা শুরু করেছিল। সেই সময় আমি বিকিনি দৃশ্যে শুটিং করার আগে এক মুহূর্তও ভাবিনি, কারণ তখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল একটা সিনেমায় কাজ পেয়েছি।’

শ্রুতি বলেন, ‘ওই শুটিংয়ে আমাকে কেমন দেখাচ্ছিলো সেই নিয়ে ট্রোলিংয়ের শিকার হয়েছিলাম। এতে আত্মবিশ্বাস কতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয় জানেন? আমাকে সেই সব ভুলে আবার কাজে মন দিতে হয়েছিল, যাতে আত্মবিশ্বাস ভেঙে না যায়।’

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত