আইপিএলে আর কখনো খেলতে যাবো নাহ: সাকিব

বিশ্ব ক্রিকেটের এক জীবন্ত কিংবদন্তীর নাম। যে কিনা বিশ্বের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে তিন বিভাগেই একসাথে নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার ছিলেন। যদিও বর্তমানে ইনজুরির কারণে দলে নিয়মিত খেলতে না পারায় নাম্বার ওয়ান পজিশন হারিয়েছেন তিনি। কিন্তু সাকিব যে কতটা ভয়ঙ্কর সেটা বিশ্ব ক্রিকেটে সবাই জানেন।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএল সানরাইজ হায়দ্রাবাদের হয়ে খেলছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে মাত্র একটি ম্যাচ দিয়ে বিবেচনা করা হয়েছে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার কে। গতবছর সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের সেরা পারফরমার ছিলেন সাকিব আল হাসান।

ব্যাটিং এবং বোলিং দুই বিভাগেই চমৎকার খেলে ছিলেন তিনি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএল এ ম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্ট নির্বাচিত হওয়া সাকিব আল হাসান বল হাতে তুলে নিয়েছেন ১৫ ম্যাচে ২৩ উইকেট। এছাড়াও ব্যাট হাতে করেছিলেন ৩০১ রান।

কিন্তু আইপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বোলিং বিবেচনা করে একাদশ থেকে বাদ পড়েছেন তিনি। যদি ওই ম্যাচে সাকিবের থেকেও বাজে বোলিং করেছেন বাকি সদস্যরা। টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শাহিদ আফ্রিদি এবং শ্রীলংকান ফাস্ট মালিঙ্গার পরে তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক সাকিব আল হাসান।

শুধু তাই নয় ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেট টুর্ণামেন্টে দিয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ব্রাভো, মালিঙ্গা এবং সুনীল নারায়ন এর পর চতুর্থ সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক সাকিব। এর আগে এক ভিডিওবার্তায় বাংলাদেশ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান জানান, শেষ ম্যাচে বড় জয়ে দলের সবাই দারুণ আত্মবিশ্বাসী।

তিনি বলেন, আইপিএলে দল দারুণ করছে। আমরা ভালো অবস্থানে আছি। ছেলেরা আত্মবিশ্বাসী। শেষ দুটি ম্যাচে আমরা দুর্দান্ত খেলেছি। আশা করছি, বাকি ম্যাচ গুলোতেও হায়দ্রাবাদ তাদের নিজস্ব পারফরম্যান্স ধরে রাখতে পারবে। আইপিএলে না আসার চিন্তাই করতেছি,তবে যেহেতু চুক্তি হয়ে গেছে সেই পর্যন্ত দলের সাথে থাকতে হবে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত