এফডিসিতে হাতাহাতি, লাঞ্ছনার শিকার হয় নায়িকারাও

জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস উপলক্ষে এফডিসি আয়োজিত দুদিনব্যাপী অনুষ্ঠান গতকাল শেষ হলো বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে। এফডিসির ভেতরে জানাজা পড়ানোর জায়গায় মঞ্চ তৈরি, অতিথিদের জন্য ছোট জায়গা বরাদ্দ রাখা, প্রথম দিনে মঞ্চ পুরোপুরি প্রস্তুত না হওয়া, মূল ফটকের সামনে স্ক্রিন বসানোর কথা থাকলেও তা না বসানো, মূল অনুষ্ঠানস্থলের বাইরে ফেস্টুন দিয়ে না সাজানো ইত্যাদি এমন বহু বিষয় নিয়ে এফডিসিভিত্তিক বিভিন্ন সংগঠন ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। এরই মধ্যে অভিযোগ এসেছে, এ দুদিনের অনুষ্ঠানের দায়িত্বে থাকা ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির নিরাপত্তাকর্মীরা হাত তুলেছেন এফডিসির কলাকুশলীদের ওপর।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবারের ঘটনা নিয়ে নৃত্যপরিচালক হাবিব বলেন, ‘অনুষ্ঠানের প্রয়োজনে আমি যখন স্টেজের সামনে যাচ্ছিলাম, তখন ইভেন্টের লোক আমাকে বাধা দেয়, আমি আমার পরিচয় দেওয়ার পরও তারা আমাকে ভেতরে ঢুকতে দেয়নি। একপর্যায়ে ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়, এমন ঘটনা দেখে আমাদের নাচের ছেলেদের সঙ্গে ইভেন্ট সিকিউরিটিদের হাতাহাতি হয়। শুধু আমি না, অনেক চলচ্চিত্র নায়িকাও লাঞ্ছনার শিকার হয়।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক লাঞ্ছনার শিকার এক নায়িকা অভিযোগ করে বলেন, ‘আমি আমার পরিচয় দেওয়ার পরও তারা আমাকে ভেতরে ঢুকতে দেয়নি। আমি বলেছি, আমি শিল্পী সমিতির একজন মেম্বার; ভেতরে যাওয়ার অধিকার আমার আছে। একপর্যায়ে তাদের সঙ্গে আমার তর্কবিতর্ক হয়। তখন আমি শিল্পী সমিতিতে গিয়ে জায়েদ খানকে খোঁজ করি, সেখানে জায়েদ ভাইকে পাইনি। আমি অনুষ্ঠান থেকে চলে আসি। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই। জাতীয় চলচ্চিত্র দিবসে আমরা বাইরের লোকদের কাছে লাঞ্ছিত হলাম।’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির যুগ্ম মহাসচিব শাহিন সুমন বলেন, ‘এই বছর পুরো অনুষ্ঠানটি রাউন্ড দ্য ক্লক নামে এক ইভেন্ট কোম্পানি করেছে। আমি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না।’

এদিকে মঞ্চের সামনে কম জায়গা থাকায় অনেকেই অনুষ্ঠান দেখতে পারেননি। এতে তাঁরা হতাশা প্রকাশ করেন। বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চাইলে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির কেউ কথা বলতে রাজি হয়নি।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত