মসজিদে হামলাকারীর মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ

নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫০ জনকে হত্যায় অভিযুক্ত ব্রেন্টন ট্যারেন্টের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। শুক্রবার হাই কোর্টের বিচারক ক্যামেরন ম্যান্ডার এ নির্দেশ দিয়েছেন।

গত মাসে ক্রাইস্টচার্চে হামলার পর এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো আদালতে হাজির করা হয় ট্যারেন্টকে। তার বিরুদ্ধে ৫০ জনকে হত্যার এবং ৩৯ জনকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে।

কারাগার থেকে ভিডিও লিংকের মাধ্যমে আদালতে হাজির করা হয় ট্যারেন্টকে। এসময় আদালত কক্ষে নিহতদের স্বজন ও বন্ধুদের অনেকে উপস্থিত ছিলেন। আদালতে হাজিরের সময় ট্যারেন্ট ছিলেন নীরব ও ভাবলেশহীন।

বিচারক ক্যামেরন প্রায় আধাঘন্টার শুনানিতে ট্যারেন্টের ওপর দুটি মূল্যায়ণ প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন-প্রথমত সে মানসিক সক্ষমতা হারিয়েছে কিনা, উন্মাদ কিনা এবং দ্বিতীয়ত, তা না হলে সে বিচারের মুখোমুখি হওয়ার উপযুক্ত কিনা।

নিউ জিল্যান্ডের সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, কারো বিচারের ক্ষেত্রে এটি সে দেশের নিয়মিত প্রক্রিয়া।

আদালত বলেছে, ট্যারেন্ট আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ পাবেন কিনা তা নির্ভর করবে তার মানসিক স্বাস্থ্য মূল্যায়ন এবং ‘অন্যান্য উন্নয়নের ওপর’।

আইন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, দুজন মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ট্যারেন্টকে পরীক্ষা করবেন। একইসঙ্গে পুলিশও তার বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ আনতে পারে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত