২৩ কোটি টাকার লটারিতে জয়ী হয়েছেন এক প্রবাসী, কিন্তু তাকে পাওয়া যাচ্ছে না

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবু ধাবি বিগ টিকেট র‌্যাফেল ড্রতে এক কোটি দিরহাম (প্রায় ২৩ কোটি টাকা) জ্যাকপট জয়ী হয়েছেন এক প্রবাসী। কিন্তু কোনোভাবেই ওই প্রবাসীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছে না বিগ টিকেট র‌্যাফেল ড্র কর্তৃপক্ষ।

হাজার হাজার কুপনের মাঝ থেকে তোলা একটি টিকেট প্রথম পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। আবু ধাবি বিগ টিকেট র‌্যাফেল ড্রতে প্রথম পুরস্কার এক কোটি আমিরাতি দিরহাম (বাংলাদেশি ২২ কোটি ৯৪ লাখ ৭৫ হাজার ৪৮ টাকা)। টিকেটে দেয়া মোবাইল ফোন নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে বিজয়ী ব্যক্তি ভুল ফোন নাম্বার টিকেটে দিয়েছেন বলে ফোনের অপর প্রান্ত থেকে জানানো হয়।

আবু ধাবি বিগ টিকেট র‌্যাফেল ড্র কর্তৃপক্ষ বলছে, কোটি দিরহাম জয়ী ওই ব্যক্তি একজন ভারতীয়। তিনি আরব আমিরাতেই বসবাস করেন। কিন্তু লটারি জয়ের ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

কোটি দিরহাম জ্যাকপট জয়ী ভারতীয় ওই প্রবাসীর নাম রবীন্দ্র বোলুর। বুধবার রাতে আবু ধাবিতে এক অনুষ্ঠানে র‌্যাফেল ড্রতে নতুন মাল্টি মিলিওনেয়ার হিসেবে তার নাম ঘোষণা করা হয়। কিন্তু ওই ব্যক্তির কাছে এখনও এই খবর পৌঁছাতে পারেনি আয়োজকরা।

বিগ টিকেট কর্তৃপক্ষের এক কর্মকর্তা বলেছেন, আমরা তার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তার কাছে পৌঁছানো যাচ্ছে না। আমরা দেখতে পেয়েছি, তিনি যে মোবাইল নাম্বার দিয়ে টিকেটের রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন, সেটি তার নাম্বার নয়।

সৌভাগ্যবান রবীন্দ্রর কোটি টাকা জয়ী টিকেটের নাম্বার ০৮৫৫২৪। কিন্তু টিকেটে বিস্তারিত লেখা না থাকায় বেশি কিছু জানা যাচ্ছে না। তবে তিনি একজন ভারতীয় এবং আবু ধাবিতে বসবাস করেন।

আরব আমিরাতে নিবন্ধনকৃত একটি মোবাইল নাম্বার কুপনে পাওয়া যায়। সেই নাম্বারে আয়োজকরা যোগাযোগের চেষ্টা করলে একজন নারী কথা বলেন। মোবাইলে তিনি লটারির আয়োজক রিচার্ডকে জানান, রবী এখানে নেই। সে মুম্বাইয়ে। দয়া করে এক সপ্তাহ পরে ফোন করুন। কারণ তাকে এখন পাওয়া যাবে না।

চলতি মাসের শেষের দিকে তিনি আরব আমিরাতে ফিরবেন বলে জানান ওই নারী। বেশ কিছু তথ্যের জন্য তাকে জোরাজুরি করা হলে ওই নারী জানান, তিনি রবীর মেয়ে। তবে লটারির পুরস্কার বুঝিয়ে নেয়ার জন্য বিগ টিকেট কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত কোনো চূড়ান্ত সময়সীমা বেধে দেয়নি। রিচার্ড বলেন, শিগগিরই আমরা এটি করবো।

তবে আমিরাতে এবারই প্রথম এ ধরনের ঘটনা ঘটল, বিষয়টি সেরকম নয়। এর আগেও একই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে লটারির আয়োজকরা মানেকুদি ভারকি ম্যাথিউ নামের এক ভারতীয় প্রবাসীকে কয়েকদিন ধরে হন্যে হয়ে খোঁজেন।

সেই সময় এই ভারতীয় ছুটি কাটাতে দেশে চলে আসছিলেন। দেশে আসার পর থেকে তার মোবাইল নাম্বারও বন্ধ পাওয়া যায়। এর আগে বিগ টিকেট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, ঘোষণার পর থেকে পরবর্তী ছয় মাসের মধ্যে বিজয়ী ব্যক্তিকে পুরস্কার বুঝে নিতে হবে।

সূত্র : গালফ নিউজ

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত