কাঁঠালের বিচি খেলে কী হয়?

কাঁঠাল এশিয়ার খুব জনপ্রিয় একটি ফল। খোসা ছাড়িয়ে কাঁঠাল খাওয়া হয়, আর এর বিচি খাওয়া যায় ভেজে বা সেদ্ধ করে। ডেজার্ট হিসেবেও অনেক সময় কাঁঠালের বিচি খাওয়া হয়।

কাঁঠালের বিচি পুষ্টিগুণে ভরপুর একটি খাবার। এর মধ্যে রয়েছে রিবোফ্ল্যাবিন ও থায়ামাইন। আরো রয়েছে প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট ও আঁশ। এ ছাড়া রয়েছে ভিটামিন বি, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াস, জিংক, ম্যাঙ্গানিজ, আয়রন ও কপার। এগুলো চোখ, ত্বক ও চুলের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখতে কাজ করে।

কাঁঠালের বিচি খাওয়ার কিছু গুণের কথা জানিয়েছে জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের স্বাস্থ্য বিভাগ।

১. কাঁঠালের মধ্যে থাকা প্রোটিন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কাজ করে।

২. কাঁঠালের বিচি হাড়ের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখতে উপকারী। এর মধ্যে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম। এই ম্যাগনেসিয়াম ক্যালসিয়াম শোষণে সাহায্য করে। এটি হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি প্রতিরোধ করে।

৩. কাঁঠালের বিচিতে রয়েছে লিগন্যানস, স্যাপোনিনস, আইসোফ্ল্যাবোনস ও ফাইট্রোনিউট্রিয়েন্টস। এগুলো ক্যানসার প্রতিরোধে উপকারী।

৪. এই বিচির মধ্যে রয়েছে ভিটামিন এ। ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে এবং শরীরের অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গকে ঠিকঠাকমতো কাজ করতে সাহায্য করে।

৫. লিগন্যানস, স্যাপোনিনস, আইসোফ্ল্যাবোনস ও ফাইট্রোনিউট্রিয়েন্টসের মধ্যে রয়েছে তারুণ্য ধরে রাখার উপাদান। এগুলো ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে কার্যকর।

৬. কাঁঠালের বিচির মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপাদান। যেসব ব্যাকটেরিয়ার কারণে খাবার থেকে অসুখ সৃষ্টি হয়, সেগুলো রোধে এটি সাহায্য করে। তবে যেকোনো খাবার নিয়মিত খাওয়ার আগে আপনার শরীরের অবস্থা বুঝে, চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে খাওয়াই ভালো।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত