মালেয়শিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের ৫ আকুতি

সব ভিসায় এসে কেউ কিছু করতে পারেনা শুধু প্রতারিত হয় যেমন,টুরিস্ট ভিসা কাজের জন্যে যারা আসে,স্টুডেন্ট ভিসা,টেনিং ভিসা,ল্যাংগুয়েজ ভিসা,বডি কন্টাক্ট, প্রফেশনাল কেটাগরি। ২ এবং কেটাগরি ৩ এইসব ধুংফুং ভিসায় এসে মালয়েশিয়া সাধারন মানুষ না বুঝে চলে আসে। মালেয়শিয়া প্রবাসীদের ৫ টা দাবী সবচেয়ে বেশি! তা নিচে উল্লেখ করা হলোঃ

১। মালয়েশিয়া প্রতারিতাদের বৈধ হওয়ার সহজ নিয়মে বৈধতা দেওয়ার সুযোগ!
২। বৈধতা না দিলে সহজ নিয়মে কিভাবে কম টাকায় হয়রানি ছাড়া দেশে যাওয়া যায় তার ব্যবস্থা!
৩। নতুন করে নতুন নিয়মে স্বল্প খরচে কলিং ভিসা চালু করা!
৪। জেলে আটকাপড়া ভাইদের দ্রুত দেশে পাঠানো!
৫। কাজের ভিসা ছাড়া ধুংফুং ভিসায় মালয়েশিয়া আসার সুযোগ না দেওয়া।

আবার কেউ বুঝে শুনে এসেও কিছু করতে না পারলে দালালকে গালি দিতে থাকে। তাই এইসব ভিসায় যেন কেউ আসতে না পারে সেই দিকে নজর দিতে হবে তাহলে অবৈধদের মাত্রা কমতে থাকবে। সেই সাথে কলিং চালু হলে হাইকমিশন দায়িত্বশীল হলে যেই সব কোম্পানি শ্রমিকের ন্যায্য অধিকার দেয় না তা যাচাই বাচাই করে অনুমতি না দেওয়া তাহলেই মালয়শিয়া বাংলাদেশিদের ভোগান্তি কমার পাশাপাশি অবৈধদের সংখ্যা কমে আসবে!

বাজে কোম্পানিতে এসে শ্রমিক লাভবান হয় না বরং নির্যাতন করার কারনে তারা অবৈধ হয়ে যায়। তাই এই বিষয়ে হাইকমিনকে গুরুত্ব দিতে হবে যেন টাকার বিমিময়ে হাইকমিশনের অনুমোদন না নিতে পারে। তাহলেই মালয়েশিয়া ভালো থাকবে বাংলাদেশিরা বাড়বে রেমিটেন্স!

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত