কারিনার প্রশ্ন, বিকিনি পরতে নিষেধ করার সাইফ কে?

কারিনাকে নেটিজেনদের করা বেশ কিছু মন্তব্য পড়ে শোনান আরবাজ। তার মধ্যে একটি মন্তব্য এমন—‘সাইফ, তুমি নরকে যাবে। স্ত্রীকে বিকিনি পরতে দাও, লজ্জা হওয়া উচিত তোমার।’ বলিউডের গসিপ কুইন কারিনা কাপুর খানকে কিছুদিন আগে ‘আন্টি’ খেতাব দিয়ে সমালোচনা করা হয়। তবে মানুষের এসব অপ্রয়োজনীয় মন্তব্যে পাত্তা না দিয়ে তিনি তার কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকতে পছন্দ করেন। যেকোনো ট্রল কিংবা সমালোচনায় নির্লিপ্ত থাকা কারিনা এবার বিকিনি নিয়ে প্রশ্নের জবাবে এক বিস্ফোরক জবাব দিয়ে আবারও আলোচনায় এলেন।

সম্প্রতি আরবাজ খানের একটি চ্যাট শোতে অতিথি হিসেবে এসেছিলেন কারিনা। সেখানে তাকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে নেটিজেনদের করা বেশ কিছু মন্তব্য পড়ে শোনান আরবাজ। তার মধ্যে একটি মন্তব্য এমন—‘সাইফ আলি খান, তুমি নরকে যাবে। স্ত্রীকে বিকিনি পরতে দাও, লজ্জা হওয়া উচিত তোমার।’ এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় কারিনা পালটা প্রশ্ন রাখেন, ‘সাইফ আমাকে বিকিনি পরতে নিষেধ করার কে?’

এরপর কারিনা বলেন, ‘আমার মনে হয় না আমাদের সম্পর্কটা এই জায়গায় এসেছে যে, সাইফ আমায় প্রশ্ন করবে আমি কেন বিকিনি পরেছি বা আমি কেন এ ধরনের কাজ করেছি। সাইফ আমাকে বিশ্বাস করে। আর আমি নিশ্চয়ই অকারণে বিকিনি পরব না। আপনি কি জানেন না সুইমিং করতে গেলে বিকিনি পরতে হয়? এটা বোঝা কি এতই কঠিন! আর আমি যদি বিকিনি পরি, তাহলে সাইফ এটাই ভাববে আমি কোনো কারণেই এটা পরেছি।’

এর আগে সিনেমায় অভিনয় ছাড়াও ব্যক্তিগত জীবনে অসংখ্যবার কারিনাকে বিকিনি পরতে দেখা গেছে। সাইফ-তৈমুরকে নিয়ে মালদ্বীপে ছুটি কাটাতে গিয়ে কারিনা তার ননদ সোহা আলি খান, সোহার স্বামী কুনাল খেমু এবং ছোট্ট ইনায়া নাউমি খেমুর সঙ্গে পুলে গোসল করার সময় বিকিনি পরেছিলেন। সে সময়ও অবশ্য সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল কারিনাকে।

কারিনা কেন ছেলে তৈমুরের সামনে বিকিনি পরেছেন, তা নিয়ে আক্রমণ করা হয়েছিল নবাব-পত্নীকে। তৈমুরের পাশাপাশি ছোট্ট ইনায়াও তাদের সঙ্গে রয়েছেন, তাই সবকিছু ভুলে গিয়ে কারিনা কীভাবে বিকিনি পরলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। শুধু কারিনাকেই যে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়, তা নয়। বিকিনি পরার জন্য সোহা আলি খানের বিরুদ্ধে তোপ দাগতে শুরু করেন নেটিজেনদের একাংশ। এমনকি সাইফ-কারিনার মতো ‘নির্লজ্জ’ পরিবার আর নেই বলেও আক্রমণ করা হয়।

পাঠকের মতামত