বিশ্বের ৭০ দেশে নতুন বৈশিষ্ট্যের ক’রো’না

প্রকাশিত: জানু ২৯, ২০২১ / ১১:৪৯অপরাহ্ণ
বিশ্বের ৭০ দেশে নতুন বৈশিষ্ট্যের ক’রো’না

লকডাউনের মধ্যেও লন্ডনে ক’রো’না’ভা’ইরাস সংক্র’মণ কমার কোনো লক্ষণ নেই। রাস্তাঘাট ফাঁকা থাকলেও হাসপাতালগুলোতে ব্যাপক ভীড়। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে উপচে পড়ছে ক’রো’না রোগী।

সে দেশের হাসপাতালগুলোতে কোথাও ১৬ জনের শয্যায় রাখা হয়েছে ৩০ জনকে। আকার কোথাও শয্যার অভাবে রোগী ফেরাতে বাধ্য হচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে মৃ’ত্যু’র মি’ছি’ল তো রয়েছেই।

ব্রিটেনে এখন পর্যন্ত ক’রো’না’ভা’ই’রাসে আ’ক্রান্ত হিসেবে শ’না’ক্ত হয়েছে ৩৭ লাখ ৪৩ হাজারের বেশি মানুষ এবং মা’রা গেছে এক লাখ তিন হাজার একশ ২৬ জন।

নতুন বৈশিষ্ট্যের ক’রো’না’ভা’ই’রা’সের জেরে দেশটি নাজেহাল হয়ে যাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনার বৈজ্ঞানিক নাম ভিওসি ২০২০১২/০১।

ব্রিটেন চিহ্নিত হওয়া ধরন বলেই লোকে একে বেশি চেনে। মাসখানেক আগে ব্রিটেনে প্রথম চিহ্নিত হয়েছে ক’রো’না’ভা’ই’রা’সের এই নতুন ধরন। অল্প সময়ের মধ্যেই তা বিশ্বের ৭০টি দেশে ছ’ড়ি’য়ে পড়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) এ তথ্য জানিয়েছে।

এক সপ্তাহে আরও ১০টি দেশে তা ছড়িয়ে পড়ার আ’শঙ্কা রয়েছে বলে সতর্ক করেছে সংস্থাটি। ভয়ের বিষয় একটাই, উহানে চিহ্নিত হওয়া পুরনো ক’রো’না ধরনটির থেকে এটি অনেক বেশি সং’ক্রা’ম’ক। বহু ক্ষেত্রে তা দ্বিতীয় সং’ক্র’ম’ণের কারণ হিসেবেও ধরা পড়েছে। পাশাপাশি, দক্ষিণ আফ্রিকায় চিহ্নিত করোনার নতুন স্ট্রেনের খোঁজ মিলেছে অন্তত ৩১টি দেশে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটিও কম সং’ক্রা’ম’ক নয়।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন