ক্যারিবীয় ক্রিকেটারের জীবন বদলে গেছে কোহলির টোটকায়

প্রকাশিত: জানু ২৯, ২০২১ / ০৮:৩৯অপরাহ্ণ
ক্যারিবীয় ক্রিকেটারের জীবন বদলে গেছে কোহলির টোটকায়

সোশ্যাল সাইটে মাঝেমধ্যে কথাবার্তা হতো তাদের। একবার মাঠে মাত্র ১০ মিনিটের আলোচনা হয়েছিল। এতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনিং ব্যাটসম্যান জারমেইন ব্ল্যাকউডের ক্রিকেট দর্শনটাই পুরোপুরি বদলে যায়।

যার পরামর্শে তার জীবনে এত বড় বদল এল, তিনি বিরাট কোহলি। ভারত অধিনায়কের কারণেই নাকি তার মাঝে টেস্ট ক্রিকেটে বড় রান করার ক্ষুধার জন্ম হয়েছিল। সম্প্রতি এসব তথ্য প্রকাশ করে কোহলির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

ক্যারিবিয়ান ওপেনার বলেন, ‘২০১৯ সালে ভারতীয় দল এসেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। তার আগে মাঝেমধ্যেই তার (কোহলি) সঙ্গে সোশ্যাল সাইটে কথা বলতাম। এরপর জ্যামাইকাতে টেস্ট ম্যাচ চলার সময় প্রথমবার কোহলির সঙ্গে সামনাসামনি কথা বলেছিলাম।

ওই সময় আমি সহজে হাফ সেঞ্চুরি করতে পারলেও কিছুতেই বড় রান করতে পারছিলাম না। ফলে বেশ কয়েকবার দল থেকে বাদও পড়েছিলাম। তাই সেই ম্যাচের শেষে তার সঙ্গে কথা বলতে যাই। খুবই বিনয়ের সঙ্গে বিরাট সেদিন কথা বলেছিল।’

প্রসঙ্গত সেই টেস্টে ড্যারেন ব্রাভো চোট পাওয়া ‘কনকাশন সাব’ হিসেবে মাঠে নামেন ব্ল্যাকউড। তিনি আরও বলেন, ‘তাকে বলেছিলাম, আমি টেস্টে বড় রানের ইনিংস খেলতে চাই। তোমার পরামর্শ প্রয়োজন।’

কোহলি পাল্টা জিজ্ঞেস করেন, ‘শেষবার সেঞ্চুরি করার সময় তুমি কতগুলো বল খেলেছিলে?’ আমি বললাম, ‘২১২ বল খেলেছিলাম।’ সেটা শোনার পর কোহলির প্রতিক্রিয়া ছিল, ‘এটাই তো শুনতে চেয়েছিলাম।

সেঞ্চুরি করার জন্য ২১২ বল খেলতে পারলে তোমার উইকেটে টিকে থাকার ক্ষমতা আছে। এবার সেটা বাড়ানোর জন্য ধৈর্য ধরে এগিয়ে যাও। ধৈর্য বাড়ানোর জন্য যোগ ব্যায়াম খবুই ভালো ওষুধ।’

কোহলির এই পরামর্শ ব্ল্যাকউডের জীবনে পরিবর্তন ঘটায়। কয়েক বছর আগে তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে নিয়মিত ছিলেন না। তবে সেই ব্ল্যাকউড ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সবচেয়ে বেশি রান করেন।

কোহলির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সেই ঘটনা আমার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছিল। বিপক্ষের বড় বড় বোলারদের বিপক্ষে খেলতে আর কখনও সমস্যা হয়নি। প্রায় তিন বছর দলের বাইরে ছিলাম।

কোহলির বক্তব্য আমাকে মানসিকভাবে চাঙ্গা করেছে। এরপর থেকে নেটে ব্যাটিং করা ছাড়াও ফিটনেস বাড়ানোর জন্য যোগ ব্যায়াম ও জিম করেছি। এতেই আমার উন্নতি হয়েছে।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন