১৬ বিরোধী দল ভারতের সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণ বয়কট করবে

প্রকাশিত: জানু ২৮, ২০২১ / ০৬:৪৯অপরাহ্ণ
১৬ বিরোধী দল ভারতের সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণ বয়কট করবে

ভারতের সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণ বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ১৬টি বিরোধী দল। কৃষি আইন প্রত্যাহার করার জন্য সরকারের ওপর চাপ যাতে বজায় থাকে, তার জন্য এ পন্থা নিল বিরোধীরা। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, ১৬টি দল একযোগে সংসদের যৌথ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণ বয়কট করবে বলে জানিয়েছেন। রাজ্যসভায় বিরোধী দলনেতা প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লিতে যে হিংসা হয়েছে, তাতে সরকারের ভূমিকা কি ছিল, সেই নিয়ে তদন্তের দাবি করেছে।

বুধবার কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়, একবছরের মধ্যে দ্বিতীয়বার দিল্লিতে আইনের শাসন ভেঙে পড়েছে। দিল্লি পুলিশ যেহেতু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের আওতায়, তাই এর দায় অমিত শাহকে নিতে হবে। এখনই মোদির উচিত শাহকে বরখাস্ত করা বলে জানান কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা।

কংগ্রেসের দাবি, কৃষকদের আন্দোলন দুর্বল করার জন্যই একশ্রেণির বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে সরকার। তার জেরেই লাল কেল্লায় উড়েছে ধর্মীয় পতাকা।

গুলাম নবি আজাদ বলেন, সংসদে কৃষি বিলগুলি নিয়ে আলোচনা করার সুযোগ দেয়নি সরকার। তার আগেই জোরজবরদস্তি করে বিলগুলি পাস করানো হয়। সেটার বিপক্ষেই আমাদের এ প্রতিবাদ।

প্রসঙ্গত, বাজেট অধিবেশনের শুরুতে সংসদের যৌথ অধিবেশনে বক্তব্য রাখার কথা ভারতের রাষ্ট্রপতি কোবিন্দের। কিন্তু সেখানে উপস্থিত থাকবেন না বিরোধীরা। বাজেট অধিবেশন যে শান্ত ভাবে হবে না ও কৃষি আইন নিয়ে উত্তাল হবে লোকসভা ও রাজ্যসভা, সেটারই ইঙ্গিত এটি বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন