জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদকের আসর, আটক ১০

মাদকের আসর: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন দিনব্যাপী হিম উৎসবের শেষদিন মুক্তমঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলার সময় পার্শ্ববর্তী এলাকায় মাদক সেবনকালে ঢাকা ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ ১০ জনকে আটক করা হয়েছে। শনিবার রাতে মাদক সেবনের খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসানের নেতৃত্বে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা হিম উৎসবের অনুষ্ঠানস্থলে অভিযান চালান।

এ সময় মাদক সেবনের দায়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত একাধিক ব্যান্ডের কয়েকজন সদস্যকে আটক করা হয়। এছাড়া গাঁজা সেবনকালে আরও ৮ জনকে আটক করা হয়। পরে অবশ্য মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয় প্রশাসন।

প্রক্টর ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, আমরা অভিযান চালিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার বিভাগের ৭ম ব্যাচের শিক্ষার্থী আসাদুজ্জামান নূরকে প্রকাশ্যে মদ্যপান ও বিতরণরত অবস্থায় আটক করি। এ সময় তার সঙ্গে ছাত্রীসহ আরও ১২-১৫ জনকে মদ্যপ অবস্থায় পাওয়া গেছে।

এছাড়া প্রকাশ্যে গাঁজা সেবনকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত আট শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়। পরে আটক সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তবে মদ বিতরণকারী নূরকে পুলিশে দেয়ার নির্দেশনা দেন তিনি।

মাদকবিরোধী অভিযানের বিষয়ে প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে আমরা ‘জিরো টলারেন্স’ নিয়েছি। মুক্তমঞ্চের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানকে ঘিরে এভাবে প্রকাশ্যে বহিরাগতদের মাদক সেবন ও মাদক গ্রহণ খুবই দুঃখজনক। এসব বিষয়ে আয়োজক কমিটিকে আরো সচেতন হওয়া দরকার বলে মনে করেন তিনি।

এ বিষয়ে হিম উৎসব আয়োজক কমিটির সদস্য নীল বলেন, এই ঘটনা হিম উৎসবের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট না। এটা যারা করেছে তারা বহিরাগত। ব্যক্তিগতভাবে তারা এসব করেছে। এর দায়ভার হিম উৎসব কর্তৃপক্ষ নেবে না। হিম উৎসব কর্তৃপক্ষ মাদক সংশ্লিষ্ট কোনো বিষয় সমর্থন করে না।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত