নবনির্বাচিত কাউন্সিলর হ’ত্যা: জাহিদুলের স্বীকারোক্তি

প্রকাশিত: জানু ২২, ২০২১ / ০৮:৫০অপরাহ্ণ
নবনির্বাচিত কাউন্সিলর হ’ত্যা: জাহিদুলের স্বীকারোক্তি

সিরাজগঞ্জে চাঞ্চল্যকর পৌরসভার নবনির্বাচিত কাউন্সিলর তরিকুল ইসলাম খান হ’ত্যা’কা’ণ্ডে মূল অ’ভি’যু’ক্ত জাহিদুল ইসলামকে গ্রে’ফ’তা’র করেছে পুলিশ। ঢাকা হতে আত্ম’গো’পনে থাকাবস্থায় পুলিশ তাকে আ’ট’ক করে। হ’ত্যা’কা’ণ্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা চাইনিজ ছোরাও উ’দ্ধা’র করা হয়।

শুক্রবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ সদর থানা প্রাঙ্গণে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম বিপিএম।

গ্রে’ফ’তা’রের পর তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন। জাহিদুল ইসলামের বয়স ২০। তার পিতা বেপারীপাড়ার টিক্কা বেপারী। পেশায় জাহিদুল কাঠ মিস্ত্রীর সহকারী।

১৬ জানুয়ারি সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ডের ফল ঘোষণার পর বিজয়ী কাউন্সিলর তরিকুল ইসলাম খানকে ছু’রি’কা’ঘা’ত করে হ’ত্যা করা।

পরে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন বুদ্দিনসহ জ্ঞা’ত-অ’জ্ঞাত ৮০ জনের নামে হ’ত্যা মা’ম’লা করেন নিহিত তরিকুল ইসলাম খানের ছেলে ইকরামুল হাসান খান হৃদয়। এর আগে স্বপন বেপারী নামে আরও একজন এজাহার ভুক্ত আ’সা’মি’কে গ্রে’ফ’তা’র করা হয়।

পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম জানিয়েছেন, চাঞ্চল্যকর এ হ’ত্যা’কা’ণ্ডে’র অন্য আ’সা’মি’দে’র’ও আ’টকে অ’ভি’যা’ন চলছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন