মোদি সরকারের নতুন উদ্যোগ, সুখবর পেল কাশ্মীরের জনগন

গত মঙ্গলবার ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির সভাপতি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের ঘোষণা দেন। ফলে কাশ্মীর বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা হারায়। সেই ঘোষণা থেকে অন্ধকারেই ছিল জম্মু-কাশ্মীর উপত্যকা জারি রয়েছে কার্ফিও।

অবশেষে নতুন উদ্যোগ নিল মোদি সরকার, সুখবর পেল কাশ্মীরের জনগণ। বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণের পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছে দিল্লি সরকার তারই অংশ হিসেবে আজ খুলছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি অফিস।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তার ভাষণে বলেছেন, জম্মু-কাশ্মীরে ভোট হবে, মানুষ নিজের বিধায়ক-মুখ্যমন্ত্রী পাবেন ঈদে বাড়ি ফেরার সুযোগ পাবেন প্রবাসী কাশ্মীরিরা। আয় হবে, হবে উন্নয়ন, আসবে বিনিয়োগ সর্বোপরি রাজ্যের মর্যাদাও আবার ফিরে পাবে জম্মু-কাশ্মীর।

মোদীর সেই বক্তব্যের পর কাশ্মীর উপত্যকার পরিস্থিতি বদলাতে আজ শুক্রবার (৯ আগস্ট) নেয়া হচ্ছে নতুন উদ্যোগ। কাশ্মীরের স্কুলগুলো খুলবে। এর পাশাপাশি আজ থেকেই সরকারি কাজে যোগদান করবেন কর্মীরা। জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসনের পক্ষ থেকে এক বিবৃতি বলা হয়েছে, রাজধানী শ্রীনগরে প্রশাসনিক স্তরের সরকারি কর্মীদের কাজে যোগদানের জন্য রিপোর্ট করতে বলা হয়েছে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত