দৈহিক শক্তি বৃদ্ধি করে যে ৫ খাবার

প্রকাশিত: জানু ১৯, ২০২১ / ১০:১৪পূর্বাহ্ণ
দৈহিক শক্তি বৃদ্ধি করে যে ৫ খাবার

আমরা জীবনকে চালিয়ে নিতে কত কিছুই না খেয়ে থাকি। তবে শুধু গড়পড়তা খেয়ে গেলেই তো আর হবে না! ফিট থাকতে হলে আপনাকে দৈনন্দিন খাবারের প্রতি পূর্ণ মনোযোগী হতে হবে। আমাদের বেঁছে নিতে হবে কোন খাবারটা শরীরের পক্ষে উপযোগী বা কোনটা অস্বাস্থ্যকর! তবে খাবার আমাদের চালিকা শক্তি হলেও কিছু খাবার অন্য সব ধরনের খাবার থেকে একটু এগিয়ে নিয়ে আমাদেরকে দৈহিক শক্তি প্রদান করে থাকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেখানের পাঁচটি খাবার সম্পর্কে…

৥ দুধ: আপনি যদি শরীরে শক্তির হরমোন তৈরি হওয়ার পরিমাণ বাড়াতে চান তাহলে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট জাতীয় খাবার গ্রহন করুন। তবে সেসব খাবারগুলোকে হতে হবে প্রাকৃতিক এবং স্যাচুরেটেড ফ্যাট। যাতে বেশি পরিমাণ প্রাণিজ-ফ্যাট আছে, ফলে প্রাকৃতিক খাদ্য শারীরিক শক্তির উন্নতি ঘটায়। যেমন, খাঁটি দুধ, দুধের সর, মাখন ইত্যাদি।

৥ ডিম : দৈহিক দুর্বলতা দূর করতে বিশেষ টনিক হিসেবে কাজ করে থাকে ডিম। প্রতিদিন সকালে অথবা সপ্তাহে অন্তত পাঁচ দিন ১টি করে ডিম সিদ্ধ করে খান। এতে নিজেকে অনেকটা চাঙ্গা রাখতে পারবেন। কেটে যাবে আপনার দৈহিক দুর্বলতা।

৥ মধু : আজকাল দৈহিক শক্তি বাড়াতে প্রাকৃতিকভাবেই দৈহিক শক্তি বর্ধক খাদ্যই অনেক বেশি কার্যকরী হিসেবে বিবেচিত হয়। আর সেখানে প্রথম সারির নাম হলো মধু। দৈহিক দুর্বলতার সমাধানের মধুর গুণের কথা সবারই কম-বেশি জানা। তাই দৈহিক শক্তি বাড়াতে প্রতি সপ্তাহে অন্তত ৩/৪ দিন এক গ্লাস গরম পানিতে এক চামচ খাঁটি মধু মিশিয়ে পান করুন।

৥ রসুন: দৈহিক স্বাস্থ্য ভালো রাখতে চাইলে প্রতিদিন খাবার তালিকায় রসুন রাখুন। নিয়মিত রসুন খাওয়ার অভ্যাস দৈহিক ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য অত্যন্ত উপকারী। রসুনে রয়েছে এলিসিন নামের উপাদান যা দৈহিক ইন্দ্রিয়গুলোতে রক্তের প্রবাহ বাড়িয়ে দেয়।

৥ কলা: কলার মাঝে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ শর্করা যা আপনার দেহের শক্তি বৃদ্ধি করে। এছাড়া কলায় থাকে ভিটামিন এ, বি, সি ও পটাশিয়াম। ভিটামিন বি ও পটাশিয়াম মানবদেহের রস উৎপাদন বাড়ায়। আর কলায় রয়েছে ব্রোমেলিয়ানও। যা শরীরের টেস্টোস্টেরনের মাত্রা বাড়াতেও সহায়ক।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন