লঞ্চের ধা’ক্কা’য় পন্টুনে দাঁ’ড়িয়ে থাকা যাত্রীর পা বি’চ্ছি’ন্ন

প্রকাশিত: জানু ১৬, ২০২১ / ১১:৫২অপরাহ্ণ
লঞ্চের ধা’ক্কা’য় পন্টুনে দাঁ’ড়িয়ে থাকা যাত্রীর পা বি’চ্ছি’ন্ন

ভোলার দৌলতখান উপজেলায় ঢাকাগামী এমভি ফারহান-৫ লঞ্চের ধা’ক্কা’য় পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা কোহিনুর বেগম (৪০) নামের এক যা’ত্রীর পা বি’চ্ছি’ন্ন হ’য়েছে।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দৌলতখান লঞ্চঘাটে এ দু’র্ঘ’ট’না ঘটে। আ’হ’ত কোহিনুর বেগম ওই উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মো. সালাউদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিনের মতো হাতিয়া থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা এমভি ফারহান-৫ লঞ্চটি দৌলতখান লঞ্চঘাটে যাত্রী উঠানোর উদ্দেশ্যে ঘাটে ভেড়ানোর প্রস্তুতি নেয়। এ সময় লঞ্চটি বে’প’রো’য়া’গ’তি’তে এসে পন্টুনে দাঁ’ড়ি’য়ে থাকা যাত্রী কোহিনুর বেগমকে ধা’ক্কা’য় দেয়।

এতে তার বা’ম পা হাঁ’টু থেকে বি’চ্ছি’ন্ন হ’য়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উ’দ্ধা’র করে দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অবস্থা গু’রু’ত’র হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেলে পাঠান।

দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. সিফাত জানান, রো’গী’র বা’ম পা’য়ে আ’ঘা’ত লে’গে শ’রীর থেকে বি’চ্ছি’ন্ন হয়ে যা’ওয়ায় তাকে তাৎক্ষণিক বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে রেফার করা হয়েছে।

দৌলতখান থানার ওসি মো. বজলার রহমান বলেন, নারীটি লঞ্চে উ’ঠতে গিয়ে আ’হ’ত হয়েছেন। পরে লঞ্চটি যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছে’ড়ে গেছে। তবে আমাদের কাছে এখনো কেউ অ’ভি’যো’গ দে’য়নি। অ’ভি’যো’গ পেলে আ’ই’না’নু’গ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন