ছয় মাসের শি’শুকে অ্যা’সিড নি’ক্ষে’প!

প্রকাশিত: জানু ১৩, ২০২১ / ১২:০০পূর্বাহ্ণ
ছয় মাসের শি’শুকে অ্যা’সিড নি’ক্ষে’প!

কাপাসিয়ায় আফিয়া আক্তার মীমকে নামে ৬ মাস বয়সী শি’শুকে এ অ্যা’সি’ডে ঝ’ল’সে দেয়ার অ’ভি’যো’গে উ’ঠেছে। আফিয়া আক্তার মীম উপজেলার রায়েদ ইউনিয়নের বড়হর গ্রামের মুদি ব্যবসায়ী ইমরানের মেয়ে। এ ঘটনায় অ’ভি’যু’ক্ত শামসুন্নাহারকে গ্রে’ফ’তা’র করেছে থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে মঙ্গলবার থানায় অ’ভি’যো’গ দে’য়া হয়েছে। খবর পেয়ে কালীগঞ্জ সার্কেল এএসপি ফারজানা ইয়াসমিন ও কাপাসিয়া থানার ওসি মো. আলম চাঁদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

মীমের চাচা আরমান জানান, শুক্রবার বিকালে আফিয়া আক্তার মীম তার দাদী ও স্বজনদের সঙ্গে বাড়ির আঙ্গিনায় রোদ পোহাচ্ছিল। এমন সময় প্রতিবেশী মঞ্জুরুলের স্ত্রী শামসুন্নাহার (৪০) সেখানে হাজির হয়। এক পর্যায়ে মীমকে আদর করে কোলে নিয়ে পাশের বাড়ি চ’লে যায় শামসুন্নাহার। কিছুক্ষণ পর মীমের তী’ব্র চি’ৎ’কা’রে সেখানে ছু’টে যায় মীমের স্বজনরা।

তিনি জানান, মীমের কি হয়েছে জানতে চাইলে অ’সং’ল’গ্ন জ’বাব দেয় শামসুন্নাহার। এরই মাঝে মীমের শরীর থেকে পো’ড়া গ’ন্ধ বের হতে থাকে এবং কান ও ল’জ্জা’স্থা’ন’স’হ শ’রী’রে’র বিভিন্ন অ’ঙ্গ ঝ’ল’সে যে’তে দে’খা যায়। এ সময় তার স্বজনরা তাকে দ্রু’ত পার্শ্ববর্তী আমরাইদ বাজারে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দা’হ্য পদার্থ নি’ক্ষে’প ক’রা হয়েছে জানিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

পরে সেখানে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে তার স্বজনরা মীমকে ঢাকার বারডেমে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি নিয়ে আসলেও মীমের ক্ষ’ত’স্থা’ন এখনো শু’কা’য়’নি।

শিশুটির বাবা ইমরান জানান, কী কারণে তার শিশু কন্যার ওপর এ রকম ব’র্ব’রো’চি’ত ও জ’ঘ’ন্য ঘ’টনা ঘটানো হয়েছে তা তিনি জা’নেন না। তিনি ঘটনার বি’চা’র দা’বি ক’রেন।

এএসপি ফারজানা ইয়াসমিন জানান, প্রাথমিকভাবে তারা ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে এবং জ’ড়িত শামসুন্নাহার নামে একজনকে গ্রে’ফ’তা’র ক’রা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন